৯ নভেম্বর পর্যন্ত হেফাজতে অনিল দেশমুখ

টিডিএন বাংলা ডেস্ক : প্রায় ১২ ঘণ্টা একটানা জেরার পরে সোমবার মধ্যরাতেই গ্রেফতার করা হল মহারাষ্ট্রের প্রাক্তন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অনিল দেশমুখকে। হেফাজতের বিরোধিতা করে এদিন আদালতে আবেদন জানান তাঁর আইনজীবী। কিন্তু বিচারক পি বি যাদব এনসিপি নেতা অনিল দেশমুখকে ৯ নভেম্বর পর্যন্ত ইডি হেফাজতের নির্দেশ দেন।

তদন্তকারীদের অভিযোগ, অনিলের কথায় যথেষ্ট অসংগতি রয়েছে। পাশাপাশি তাঁর উত্তরেও সন্তুষ্ট নন ইডি আধিকারিকরা। ইডির তরফে জানানো হয়েছে, তারা অনিল দেশমুখের বিরুদ্ধে টাকা তছরুপ প্রতিরোধক অ্যাক্টে মামলা দায়ের করেছে। মুম্বই পুলিশের প্রাক্তন কমিশনর পরমবীর সিং তাঁর বিরুদ্ধে ঘুষ নেওয়ার অভিযোগ আনেন।ইডির দাবি, অনিলকে জেরা করা হলে বয়ানে অসঙ্গতি মেলে। তারপরই অনিল দেশমুখকে গতকাল গভীর রাতে গ্রেফতার করে ইডি। এর আগে ইডির সমন এড়ানোর জন্য বম্বে হাইকোর্টের দ্বারস্থ হয়েছিলেন অনিল দেশমুখ। কিন্তু বম্বে হাইকোর্টে সেই আবেদন বাতিল করে দিয়েছিল। সূত্রের খবর, ইডি আধিকারিকরা ৪ কোটি টাকা তছরূপের খোঁজ পেয়েছেন। অম্বানীকাণ্ডে অভিযুক্ত সচিন ভাজ়ের মাধ্যমে হাতবদল হয়ে তা অনিল দেশমুখের কাছে এসেছিল। বহুবার ইডির তলব এড়িয়ে যান অনিল।৩০ জুলাই চতুর্থবার তাঁকে তলব করে এই কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা। কিন্তু শেষমেশ ইডির ডাকে সাড়া দিয়ে সোমবার ১ নভেম্বর ইডি দফতরে হাজিরা দেন অনিল।