কর্নাটকে পঞ্চায়েতের পর পুরভোটেও বিজেপিকে টোপকে সর্বাধিক আসনে জয়ী কংগ্রেস

টিডিএন বাংলা ডেস্ক : কর্নাটকে পঞ্চায়েতের পর পুরভোটেও বিজেপিকে টোপকে সর্বাধিক আসনে বিজয়ী হল কংগ্রেস। কর্নাটকের ২০টি জেলার ৫৮টি পুরসভার ১,১৮৪টি আসনে পুরনির্বাচন অনুষ্টিত হয়। এর মধ্যে কংগ্রেস প্রার্থীরা ৫০১টি আসনে বিজয়ী হয়েছেন বলে খবর। অন্যদিকে ক্ষমতাসীন বিজেপি ৪৩৩টি আসন পেয়ে দ্বিতীয় স্থানে আছে। এছাড়া জেডি(এস) ৪৫ এবং নির্দল ও অন্যেরা ২০৫টি আসন পেয়েছে।

পুরসভায় সংখ্যাগরিষ্ঠতার নিরিখে দেখলে কংগ্রেস অন্তত ২৫টি পুরসভায় সংখ্যাগরিষ্ঠতা পেয়েছে। এছাড়াও কয়েকটি পুরসভায় কংগ্রেস একক বৃহত্তম দল হিসাবে উঠে এসেছে। নির্দল এবং অন্য ছোট দলগুলির সমর্থন নিয়ে সেখানে কংগ্রেসের বোর্ড গড়ার সম্ভাবনা। যদিও প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী এইচ ডি দেবগৌড়া এবং তাঁর ছেলে তথা প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী কুমারস্বামীর দল জেডি(এস) কয়েকটি পুরসভাগুলিতে বিজেপিকে সমর্থন দিতে পারে বলে মনে করা হচ্ছে।

মোট ভোট প্রাপ্তির নিরিখে দেখলে কংগ্রেস ৪২.০৬, বিজেপি ৩৬.৯ এবং জেডি(এস) ৩.৮ এবং নির্দল ও অন্যেরা ১৭.২২ শতাংশ ভোট পেয়েছে। কর্নাটক প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি ডি কে শিবকুমার এবং প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী তথা বিরোধী দলনেতা সিদ্দারামাইয়া পুরভোটে জয়ের জন্য কর্নাটকবাসীকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন।

উল্লেখ্য যে, এর আগে কর্নাটকের পঞ্চায়েত ভোটেও কংগ্রেস বিজেপির থেকে ভালো ফল করেছে। আর এই কারণেই বিজেপির শির্শ নেতৃত্ব বি এস ইয়েদুরাপ্পাকে সরিয়ে বাসবরাজ বোম্মাইকে মুখ্যমন্ত্রী পদে বসিয়েছিল। কিন্তু তার পরেও ভোটের ফলে সেই একই জায়গায় দাঁড়িয়ে বিজেপি। ২০২৩ সালেই কর্নাটকে বিধানসভা ভোট হতে চলেছে। তাই এই পরাজয় বিজেপি নেতৃত্বের চিন্তার কারণ হয়য়ে উঠেছে।