পছন্দের আসন না পেয়ে দলের বিরুদ্ধে বিস্ফোরক প্রিয়াঙ্কা মৌর্য

টিডিএন বাংলা ডেস্ক : উত্তরপ্রদেশে প্রথম প্রার্থী তালিকা প্রকাশ করেছে কংগ্রেস। এরই মধ্যে বিতর্ক। তাও আবার জোড়া। একদিকে, প্রার্থী তালিকায় চমক দিতে গিয়ে মডেল-বিতর্ক। অন্যদিকে, টিকিট বিলিতে ঘুষ-কাঁটা। যা ফাঁস করে দলকে বেশ বিড়ম্বনায় ফেলে দিয়েছেন স্বয়ং প্রিয়াঙ্কা ঘনিষ্ঠ নেত্রীই। সুযোগকে কাজে লাগিয়ে ঝাঁপিয়েছে গেরুয়া শিবির।

হস্তিনাপুরের মতো গুরুত্বপূর্ণ আসনে মডেল তথা অভিনেত্রী অর্চনা গৌতমকে প্রার্থী করেছে হাত শিবির। যা নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ার বিতর্ক। একাধিক সুন্দরী প্রতিযোগীতায় বিজয়ী অর্চনা। তাঁর সেই পুরনো বেশকিছু ছবি ঝড়ের গতিতে ভাইরাল হয়ে পড়ে। বিজেপি দলের মুখপাত্র (উত্তরপ্রদেশ) রাকেশ ত্রিপাঠীর কটাক্ষ—‘একটা ঐতিহ্যবাহী দলের এই হাল! সস্তা প্রচার পেতে রাজনীতিতে আনকোরা এক মডেলকে প্রার্থী করতে হয়েছে।’ পাল্টা জবাব দিয়েছে উত্তরপ্রদেশ কংগ্রেসের মুখপাত্র অশোক সিং। তিনি বলেছেন, ‘শিল্পী বলে কী রাজনীতি করার অধিকার থাকবে না? বিজেপির একাধিক নেতা-নেত্রী তারকা। একজন আবার মন্ত্রীও। ওরাই আসলে একজন শিল্পীর সম্পর্কে এসব বলে নিম্নরুচির পরিচয় দিচ্ছে।’

মডেল-বিতর্কের মধ্যেই টিকিট বিলিতে ঘুষের অভিযোগ তুলেছেন প্রিয়াঙ্কা মৌর্য। প্রিয়াঙ্কার অভিযোগ, ‘ফেললে টাকা, টিকিট পাকা!’ বিড়ম্বনার মুখে পড়তে হচ্ছে প্রিয়াঙ্কা গান্ধিকেও। কেননা, মৌর্যের নিশানায় রয়েছেন প্রিয়াঙ্কার ব্যক্তিগত সচিব সন্দীপ সিং। কংগ্রেসের ওবিসি মুখ প্রিয়াঙ্কা মৌর্য। ভোটে দাঁড়াতেও চেয়েছিলেন তিনি। পছন্দের আসন ছিল লখনউয়ের সরোজিনী নগর। কিন্তু সেখানে দল প্রার্থী করে রূদ্রদমন সিংকে। প্রিয়াঙ্কা সেই প্রসঙ্গ তুলে টিকিটি বিলিকে ‘পরিকল্পিত’ বলে অ্যাখ্যা দিয়েছেন। বলেছেন, ‘আমার উপর যা দায়িত্ব দেওয়া হয়েছিল, তা সম্পূর্ণ করেছি। অথচ, একমাস আগে যিনি দলে এসেছেন, তাঁকেই টিকিট দেওয়া হয়েছে।’ গোটা ঘটনাটি নেত্রী প্রিয়াঙ্কা গান্ধির কানে তুলেছেন বলেও দাবি তাঁর।