“রাজ্যে মানুষের মাস্ক পড়ার প্রয়োজন নেই”; মন্তব্য অসমের বিজেপি স্বাস্থ্যমন্ত্রী হিমন্ত বিশ্ব শর্মার

ছবি সৌজন্যে: হিমন্ত বিশ্ব শর্মার ফেসবুক পেজ

টিডিএন বাংলা ডেস্ক: দেশে যখন একদিকে লাগাতার বেড়ে চলেছে করোনা সংক্রমনের হার ঠিক সেইসময় অসমের বিজেপি স্বাস্থ্যমন্ত্রী হিমন্ত বিশ্ব শর্মার দাবি, রাজ্যে বর্তমানে কোভিড – ১৯-এর কোনো কেস নেই তাই লোকেদের মাস্ক পড়ার প্রয়োজনীয়তা নেই। শনিবার একটি হিন্দি মাধ্যমের নিউজ পোর্টালকে দেওয়া একটি সাক্ষাৎকারে হেমন্ত বিশ্ব শর্মা এই দাবি করেছেন। শুধু তাই নয় এ সম্বন্ধে রবিবার একটি টুইটও করেন তিনি। শনিবার দেওয়া ওই ইন্টারভিউতে হিমন্ত বিশ্ব শর্মা বলেন, অসমের মানুষদের মাস্ক পড়ার প্রয়োজন নেই। মানুষের আম মাস্ক পড়ে ভয় বাড়িয়ে তুলছেন। তিনি আরো বলেন, রাজ্যে যখন মাস্ক পড়ার প্রয়োজন হবে তখন তিনি বলে দেবেন। শুধু তাই নয় হিমন্ত বিশ্ব শর্মা আরো বলেন, যদি মানুষেরা মাস্ক পড়েন তাহলে বিউটি পার্লার কিভাবে চলবে? ওদেরও তো চালু থাকা প্রয়োজন। অর্থনীতিরও সংস্কার হতে হবে।

এদিকে অসমের স্বাস্থ্যমন্ত্রী হিমন্ত বিশ্ব শর্মা রেহানা মন্তব্য প্রকাশ্যে আসার পর তার এই বক্তব্য নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় উপহাসের ঢল নেমেছে। করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ে যখন একের পর এক রাজ্যগুলিতে লাগাতার দৈনিক ভাবে করোনা সংক্রমনের হার বেড়ে চলেছে সে সময় অসমের স্বাস্থ্যমন্ত্রীর এহেন মন্তব্য মানুষের মনে করোনা সংক্রমণ সংক্রান্ত সচেতনতা বৃদ্ধির বদলে তাদেরকে উদাসীন থাকতে আরো বেশি উদ্বুদ্ধ করতে পারে, যার ফলে পরিস্থিতি আরো খারাপ হতে পারে বলে মন্তব্য সোশ্যাল মিডিয়ার। আর সোশ্যাল মিডিয়ায় এই হাস্য পরিহাস নিয়ে পাল্টা টুইট করে জবাব দিয়ে হিমন্ত বিশ্ব শর্মা লিখেছেন,”যে সমস্ত মানুষেরা মাস্ক সম্পর্কিত আমার বয়ান নিয়ে হাস্য পরিহাস করছেন তারা অবশ্যই আসাম আসুন এবং দেখুন আমরা কিভাবে আমাদের অর্থনৈতিক সংস্কারের পাশাপাশি দিল্লি, কেরল, মহারাষ্ট্রের মত রাজ্যগুলির তুলনায় কোভিড নাইনটিনকে নিয়ন্ত্রণ করেছি। আমরা উৎসাহের সাথে বিহু উৎসব পালন করব।”

প্রসঙ্গত, মাছ নিয়ে এধরনের বয়ান দেওয়া হিমন্ত বিশ্ব শর্মা গোটা রাজ্য জুড়ে বিজেপির হয়ে প্রচার করছেন এবং নিয়মিতভাবে কোনরকম মাস্ক ব্যবহার না করেই বিজেপির কর্মী-সমর্থকদের সাথে দেখা করছেন।