“৬০ জনেরও বেশি অন্নদাতা শহীদ হয়ে যাওয়ায় লজ্জিত হয়নি মোদি সরকার”; কৃষক আন্দোলন প্রসঙ্গে কেন্দ্রের বিজেপি সরকারকে আক্রমণ রাহুল গান্ধীর

টিডিএন বাংলা ডেস্ক: কেন্দ্রের তিনটি কৃষি আইন প্রত্যাহারের দাবিতে দিল্লির তিনটি সীমান্তে লাগাতার ৪৯ দিন ধরে বিক্ষোভ প্রদর্শন করে চলেছেন কৃষকরা। এরই মধ্যে গতকাল সুপ্রিম কোর্ট তিনটি কৃষি আইন বলবৎ করার বিষয়ে স্থগিতাদেশ জারি করেছে। পাশাপাশি কৃষকদের সমস্যা সমাধানের জন্য চার সদস্যের একটি উচ্চ স্তরীয় কমিটিও গঠন করা হয়েছে। সুপ্রিম কোর্টের পক্ষ থেকে গঠিত এই কমিটির সদস্য হিসেবে থাকছেন ভারতীয় কৃষক ইউনিয়নের ভূপিন্দর সিংহ মান, শেতকারী সংগঠনের অনিল ঘনবট, ডক্টর প্রমোদ জোশি এবং কৃষি অর্থশাস্ত্রী অশোক গুলাটি।

শীর্ষ আদালতের এই সিদ্ধান্তকে অনেক কৃষক সংগঠন স্বাগত জানালেও বেশ কয়েকটি কৃষক সংগঠন এমনও আছে যারা এই সিদ্ধান্তের জন্য নিরাশা প্রকাশ করেছেন। কৃষক নেতারা বলেন, যতক্ষণ না আইন ফেরত নেওয়া হচ্ছে ততক্ষণ পর্যন্ত আমাদের আন্দোলন শেষ হবে না।

এদিকে বিভিন্ন সংবাদ মাধ্যম সূত্রে পাওয়া খবর ও দিল্লি সীমান্তে আন্দোলনকারী কৃষক সংগঠনের সদস্যদের দাবি অনুযায়ী, এখনো পর্যন্ত আন্দোলন করতে গিয়ে মৃত্যু হয়েছে ৬০ জনের বেশি কৃষকের। এই পরিস্থিতিতে সুপ্রিম কোর্টের আইন প্রয়োগের স্থগিতাদেশের পরেও নিজেদের আন্দোলন জারি রাখতে এবং জোরদার করে তুলতে ২৬ জানুয়ারি ট্রাক্টর প্যারেড করার সিদ্ধান্তে অটল রয়েছেন কৃষক সংগঠনের সদস্যরা।

কৃষক সংগঠনগুলির ট্রাক্টর প্যারেড করার এই অটল মনোভাবকে সমর্থন করে এবং কেন্দ্রের মোদি সরকারকে কটাক্ষ করে কংগ্রেস সাংসদ রাহুল গান্ধী টুইট করে লিখেছেন,”৬০ জনেরও বেশি অন্নদাতার শহীদ হয়ে যাওয়ায় লজ্জিত হয়নি মোদি সরকার, কিন্তু ট্রাক্টর র‍্যালির জন্য তাঁদের লজ্জা বোধ হচ্ছে!”