ভারতের বিদ্বেষ বেড়েছে, দাবি ফেসবুক রিপোর্টে

টিডিএন বাংলা ডেস্ক : ভারতে বিদ্বেষমূলক পোস্ট বেড়েছে। এমনই দাবি করা হয়েছে ফেসবুকের অভ্যন্তরীণ তদন্ত রিপোর্টে। মার্কিন কংগ্রেসের হাতে জমা পড়েছে সেই রিপোর্ট। আর সেই রিপোর্টের একাংশ সম্প্রতি সংবাদমাধ্যমের কাছে এসেছে।

২০২০ এর জুলাইয়ের ওই রিপোর্টে স্পষ্ট, ভারতে বিদ্বেষমূলক, সংখ্যালঘু বিরোধী অনলাইন উস্কানি শুরু হয়েছিল আগেই। কিন্তু তা ছোট করে দেখিয়েছেন ফেসবুকের আধিকারিকরা। যার ফল ভুগতে হচ্ছে এখন। ভারতের সাম্প্রদায়িক অশান্তি শীর্ষক রিপোর্টে দেখা গিয়েছে, ২০১৯ সালে যখন ভারতে সিএএ বিরোধী প্রতিবাদ চলছে, তখন প্রতিবাদ সম্পর্কে মিথ্যে তথ্য, সংখ্যালঘু বিরোধী তথ্যে ছড়িয়ে পড়েছিল ফেসবুক এবং হোয়াটসঅ্যাপ। এই ধরনের বিদ্বেষমূলক কনটেন্ট বেড়ে গিয়েছিল প্রায় ৮০%। একই ঘটনা ঘটেছিল ২০২০-র মার্চ মাসে। ফেসবুকের অন্তরতদন্ত রিপোর্টে বেশকিছু সাক্ষাৎকারও রয়েছে। তাতে স্পষ্ট ভারতের সংখ্যালঘুরা এই ধরনের উস্কানিমূলক পোস্ট দেখে কতটা আতঙ্কিত।

২০১৯- এর জানুয়ারির রিপোর্ট অনুযায়ী ভারতে ফেসবুকের বিদ্বেষ মূলক পোস্ট বা কনটেন্ট খুব কম। সব ধর্মের মানুষই ভারতে নিরাপদ বোধ করেন। তাহলে দেড় বছরে এই চিত্র কীভাবে বদলে গেল? বিশেষজ্ঞরা বলছেন, দেড় বছরে চিত্রটা হঠাৎ বদলে যায়নি। আসলে ২০১৯ এর রিপোর্টে অনলাইনে উস্কানি, হিংসা ছড়ানোর বিষয়টি গুরুত্ব দেওয়া হয়নি। ফলে তা নিয়ন্ত্রণের চেষ্টা হয়নি।