চলে গেলেন কলরবের জনপ্রিয় তরুণ নাশিদ শিল্পী মাহফুজুল আলম

টিডিএন বাংলা ডেস্ক:
কলরবের জনপ্রিয় তরুণ নাশিদ শিল্পী মাহফুজুল আলম ইন্তেকাল করেছেন। ইন্নালিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন। নরসিংদীর একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় আজ ২০ জুলাই (মঙ্গলবার) সকাল ৮ টায় তিনি রবের ডাকে সাড়া দিয়ে না ফেরার দেশে চলে গেলেন। বাদ আসর তার জানাজা নামাজ অনুষ্ঠিত হবে বলে জানা গেছে। আওয়ার ইসলামকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন তরুণ আলোচক মাওলানা রেজাউল করিম আবরার। এদিকে কলরবের সাঈদুজ্জামান নূর আওয়ার ইসলামকে  জানান, ডেঙ্গু জ্বর ও কিডনির সমস্যা নিয়ে হাসপাতালে ভর্তি হন মাহফুজুল আলম। জ্বরের তীব্রতার সাথে ডায়েবেটিসের সমস্যা বেড়ে গিয়েছিল। গতকাল তাকে আইসিইউতে নেওয়া হয়। আইসিইউতেই  শেষ নিশ্বাস ত্যাগ করেন তিনি। জনপ্রিয় নাশিদ শিল্পী মাহফুজুল আলম কবি নজরুল কলেজ ও নয়া টোলা আলিয়ায় পড়াশোনা করতেন।
টগবগে তরুণ এই নাশিদ শিল্পীর ইন্তেকালে মূষড়ে পড়েছেন দেশের ইসলামি সংগীত জগতের লোকজন। শোক প্রকাশ করেছেন সংগীত জগতের লোকজনের বাইরে তরুন নেটিজেনদের আরো অনেকে।
নাশিদ শিল্পী মাহফুজুল আলমের জন্মস্থান নরসিংদী। ছোটবেলা থেকে ইসলামী সঙ্গীত গেয়ে জনপ্রিয় এ শিল্পী ২০১০ থেকে কলরবের শিল্পী হয়ে নিয়মিত গাইছেন দেশজুড়েই। এ পর্যন্ত ২০টিরও বেশি একক নাশিদ এবং ৩০টিরও বেশি কোরাস নাশিদ রয়েছে তার। মাহফুজুল আলম  পড়াশোনার পাশাপাশি কলরবের সিনিয়র শিল্পী এবং নাশিদ কম্পোজার হিসেবে কাজ করে যাচ্ছিলেন সফলভাবে। ২০১০ সালে কলরবে কাজ শুরু করে ‘মায়ের কথা’, ‘তোমার বন্ধু উপর তলায় বাসা’, ‘শয়নে স্বপনে মা’সহ বেশ কয়েকটি নাশিদ রিলিজ করেন সেই সময়ের এই শিশুশিল্পী। যেগুলো ইসলামী সঙ্গীতপ্রেমীদের মনে এখনো গেঁথে আছে।

সৌজন্যে- আওয়ার ইসলাম