মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সাম্প্রদায়িক রাজনীতি করছেন : সুকান্ত মজুমদার

টিডিএন বাংলা ডেস্ক : ‘মাদার টেরিজার মিশনারিজ় অব চ্যারিটি’ এর ব্যাঙ্ক এ্যাকাউন্ট বন্ধ করে দেওয়া নিয়ে বিতর্কে বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কেন্দ্র সরকারের সমালোচনায় মুখোর হয়েছিলেন। এ প্রসঙ্গে বিজেপির রাজ্য সভাপতি সুকান্ত মজুমদার অভিযোগ করে বলেন, “মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সাম্প্রদায়িক রাজনীতি করছেন।” তিনি আরও বলেন, ‘”মমতা সাম্প্রদায়িক রাজনীতি উস্কে দেওয়ার ক্ষেত্রে আসাদুদ্দিন ওয়েইসিকেও ছাপিয়ে যাচ্ছেন। অশান্তি তৈরি করতে চাইছেন তিনি। এতে প্রতিবেশী রাষ্ট্রের লাভ। মমতার কী লাভ?”

অন্যদিকে কংগ্রেসের রাহুল গাঁধী দাবি করেছেন বিদেশি সংবাদমাধ্যমে এ দেশে খ্রিস্টানদের উপরে ‘হামলার’ হচ্ছে বলে খবর বেরোচ্ছে। তিনি কটাক্ষ করে বলেন, “আমাদের দেশের অনেকেই বালিতে মুখ গুঁজে থাকলেও গোটা বিশ্ব দেখছে।” পাশাপাশি তিনি সকলের উদ্দেশ্যে বলেন, “অন্যায়ের সময় মুখ বুজে থাকাও সমান অপরাধ।”

এছাড়া প্রাক্তন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী পি চিদম্বরম কেন্দ্র সরকারের সমালোচনা করে বলেছেন, “যিনি দেশের গরিব, দুঃখী মানুষের জন্য নিজের জীবন উৎসর্গ করেছিলেন, সেই মাদার টেরিজার স্মৃতির প্রতি এর থেকে বড় অপমান আর কিছু হতে পারে না।” তিনি আরও বলেন, “স্বরাষ্ট্র মন্ত্রক কিছু বিরূপ তথ্য পেয়েছে বলে দাবি করেছে। এই শার্লক হোমসের মতো দক্ষতা সাম্প্রদায়িক হিংসা, সন্ত্রাসবাদী কার্যকলাপ বন্ধ করতে কাজে লাগানো উচিত। খ্রিস্টানদের সেবামূলক ও মানবিক কাজ বন্ধ করতে নয়।”

এ প্রসঙ্গে তৃণমূলের মুখপাত্র ডেরেক ও’ব্রায়েনের বলেন, “দেশে বিরোধীরা রয়েছেন। তাঁরা লড়াই করবেন। সর্বোপরি মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের মতো নেত্রী রয়েছেন, যিনি সব সময় নিপীড়িতদের হয়ে রুখে দাঁড়ান।”