টিডিএন বাংলা ডেস্ক : পাক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান বলেছিলেন, যুদ্ধ কোনো সমাধান নয়। এবার একই সুর শোনা গেল আফ্রিদির কণ্ঠে। ইমরানের দোসর হয়ে মাঠে নামলেন তিনি। ব্যাট ধরলেন যুদ্ধের বিপক্ষে। তাঁর কথায়, ভারত যুদ্ধের হিস্টিরিয়ায় আক্রান্ত হয়েছে। তবে সেটার এবার শেষ হওয়া দরকার। আমরা শান্তিপ্রিয় জাতি।

অভিনন্দন নামের ভারতীয় উইং কমান্ডার এই মুহূর্তে পাকিস্তানের হেফাজতে রয়েছেন। তবে জেনেভা কনভেনশন অনুযায়ী অভিনন্দনকে মুক্তি দিতে বাধ্য পাকিস্তান। বন্দি অবস্থায় তাঁর উপর কোনওরকম নির্যাতনও করতে পারবে না পাক সেনা। বুধবারই একটি ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়েছে। সেখানে দেখা যাচ্ছে, অভিনন্দন চা পান করতে করতে বলেছেন, পাকিস্তানের সেনার ব্যবহারে তিনি আপ্লুত। এমনকী দেশে ফিরলেও তাঁর জবানবন্দিতে কোনও পরিবর্তন হবে না। পাকিস্তানি সেনারা তাঁর দেখাশোনা করছেন বলেও জানিয়েছেন অভিনন্দন। তবে পাক সেনা বারবার জিজ্ঞাসা করা সত্ত্বেও অভিনন্দন নিজের মিশন সম্পর্কে কোনও তথ্য দেননি।

এবার পাকিস্তানি সেনার সেই আতিথেয়তার কথা উল্লেখ করলেন আফ্রিদি। টুইটারে লিখলেন, ‘পাকিস্তানি সেনার জন্য গর্ববোধ করছি। শত্রুদেরও আমরা এভাবেই আপ্যায়ন করি। ভারত যুদ্ধের হিস্টিরিয়ায় আক্রান্ত হয়েছে। তবে সেটার এবার শেষ হওয়া দরকার। আমরা শান্তিপ্রিয় জাতি। এই সমস্যার একমাত্র সমাধান আলোচনা- যেটা আমাদের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান আগেই উল্লেখ করেছেন।’

ইমরান খান প্রথম থেকে বলে আসছেন, আলোচনাই একমাত্র সমাধান। সেই সঙ্গে তিনি আরো বলেন, সেদেশের মাটি ব্যবহার করে সন্ত্রাসের ষড়যন্ত্র হয়েছে, প্রমাণ দিতে পারেল তিনি ব্যবস্থা নেবেন। গতকালও ইমরান যুদ্ধের বিরোধিতা করে আওয়াজ তোলেন। এদিন আফ্রিদি তাঁর সুরেই যুদ্ধ বিরোধিতার পক্ষে সওয়াল করলেন।