টিডিএন বাংলা ডেস্ক: নেপালেই জন্মেছেন ভগবান রাম। নিজের দাবিতে অনড় নেপালের প্রধানমন্ত্রী দিলেন মন্দির তৈরির নির্দেশ। তাঁর দাবি ভগবান রাম নেপালের চিতবন জেলার মাডি পুরসভার অযোধ্যাপুরীতে জন্মগ্রহণ করেছিলেন। শনিবার সেখানকার সরকারি আধিকারিকদের সঙ্গে এ বিষয়ে ফোনে দীর্ঘক্ষন আলোচনাও করেন নেপালের প্রধানমন্ত্রী জে পি ওলি।

নেপালের সংবাদপত্র হিমালয়ান টাইমসের খবর অনুযায়ী, অযোধ্যা পুরীতে রাম লক্ষণ এবং সীতার মূর্তি বসানোর নির্দেশ দিয়েছেন নেপালের প্রধানমন্ত্রী। স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের বিরাট মাপের মন্দির তৈরির জন্য প্রস্তাব জমা দেওয়ারও নির্দেশ দিয়েছে নেপাল সরকার৷ পাশাপাশি নেপালের অযোধ্যাপুরীকেই আসল অযোধ্যা হিসেবে প্রচার করা এবং তুলে ধরার জন্যও নির্দেশ দিয়েছেন তিনি৷নেপালের ওই সংবাদপত্রের রিপোর্ট অনুযায়ী, আলোচনা করার সময় আত্মবিশ্বাসী নেপালের প্রধানমন্ত্রী দাবি করেন যে, ভগবান রামের জন্ম যে নেপালে হয়েছিল সে বিষয়ে তাঁর কাছে প্রমাণ রয়েছে৷ ভারতের অযোধ্যায় যে রাম জন্মাননি, প্রয়োজনে তা তিনি প্রমাণ করে দেবেন৷

নেপালের ওই সংবাদপত্রের খবর অনুযায়ী, অযোধ্যাপুরীকে কীভাবে আসল রাম জন্মভূমি হিসেবে দাবি করে আরও সাজিয়ে তোলা যায়, সে বিষয়ে আলোচনা করতে ওই এলাকার সরকারি আধিকারিকদের কাঠমান্ডুতে ডেকেও পাঠিয়েছেন নেপালের প্রধানমন্ত্রী৷ তবে, রাম জন্মভূমি নিয়ে প্রধানমন্ত্রী অলির এই দাবি মানতে নারাজ নেপালেরই রাজনৈতিক নেতারা৷ প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী বাবুরাম ভট্টরাই বর্তমান প্রধানমন্ত্রী জে পি ওলির সমালোচনা করে বলেছেন, “ওলির বয়ান সমস্ত সীমা পার করে ফেলেছে৷ চূড়ান্ত কোনও অবস্থান নিয়ে ফেললে শুধুমাত্র ঝামেলারই সৃষ্টি হবে৷” নেপালের বিরোধী রাজনৈতিক দলগুলির অনেক শীর্ষ নেতাই ওলির এই দাবিকে অনর্থক বলে মন্তব্য করেছেন।