টিডিএন বাংলা ডেস্ক: এক কৃষ্ণাঙ্গ ব্যক্তিকে খুন করেছে এক শ্বেতাঙ্গ পুলিশ। পুলিশের এমন বর্বর কাণ্ডে মাথা হেঁট হয়েছে মার্কিন পুলিশ  ডিপার্টমেন্টের। আইনের রক্ষকই যদি এমন নির্মমতা দেখায় তাহলে সাধারণ মানুষ কার ওপর ভরসা করবে ? বিপদে আপদে কার সাহায্য চাইবে ? মিনেসােটার পুলিশও অনুশােচনায় ভুগছে এখন। সত্যিই বড় ভুল হয়েছে, যা ক্ষমার অযােগ্য। তাই এবার তারা ক্ষমা চাইছে হাঁটু গেড়ে বসে ! সাধারণ মানুষের সামনে ভুল স্বীকার করে পুলিশের ক্ষমা চাওয়ার ঘটনা বিরল। গােটা দেশের বিক্ষোভে সামিল হয়েছেন নিউইয়র্ক ও মিয়ামির পুলিশের সদস্যরা। বিক্ষোভকারীদের
সঙ্গে সংহতি জানিয়েছে অনন্য নজির গড়েছেন তাঁরা।

সূত্রের খবর , জর্জ ফ্লয়েড হত্যার প্রতিবাদে নিউইয়র্কে বিক্ষোভ চলছিল। বিক্ষোভকারীরা হাঁটু গেড়ে বসে নীরবতা পালন করছিলেন। সেসময় নিউইয়র্ক পুলিশও তাদের সঙ্গে যােগ দেন এবং তারাও সংহতি প্রকাশে হাঁটু গেড়ে বসে নীরবতা পালন করেন। সােশ্যাল সাইটের মাধ্যমে এই দশ্য ছড়িয়ে পড়েছে। নিউ ইয়র্কে পুলিশ কর্মকর্তাদের সংহতি জানানাের সেই ভিডিয়াে ধারণ করেছেন আলিয়া আব্রাহাম নামে এক বিক্ষোভকারী।

তিনি বলেন , “ আমি এমনটি প্রত্যাশা করিনি। কখনও দেখিনি তবে এমন সংহতি জানানােই যথেষ্ট নয়। আলিয়া বলেন , “ এটি দারুণ ও ভালাে লক্ষণ। কিন্তু আমরা যা চাই তা নির্দিষ্ট পদক্ষেপ। আমেরিকায় এখন অর্ধশতাধিক শহরে হত্যাকাণ্ডের প্রতিবাদে বিক্ষোভ চলছে। বিক্ষোভ চলছে মিয়ামির শহরেও। অর্ধশতাধিক বিক্ষোভকারী সেখানে গ্রেফতার হয়েছেন পুলিশের হাতে। কিন্তু কয়েকজন পুলিশ সদস্য হাঁটু গেড়ে বসে সংহতি জানানাের ফলে অনেক প্রতিবাদকারীই বুকে বল ফিরে পেয়েছেন। তবে বিক্ষোভকারীদের সঙ্গে পুলিশের এই শান্তিপূর্ণ সহাবস্থান আর কোনও শহরে দেখা যায়নি।