টিডিএন বাংলা ডেস্ক: মঙ্গলবার রাশিয়ার রাষ্ট্রপতি ভ্লাদিমির পুতিন ঘোষণা করেন রাশিয়া বিশ্বের প্রথম করোনাভাইরাস বিরোধী ভ্যাকসিন প্রস্তুত করে ফেলেছে। শুধু তাই নয়, তিনি আরো বলেন, এই ভ্যাকসিন তাঁর দুই কন্যার মধ্যে এক কন্যার শরীরে প্রয়োগ করা হয়েছে এবং তিনি সুস্থ বোধ করছেন। রাশিয়া এই ভ্যাকসিনটির নাম দিয়েছে তাদের অন্যতম উপগ্রহ “স্পুৎনিক ভি” এর নামে। দাবি করা হয়েছে যে এই ভ্যাকসিনের সাহায্যে করোনার বিরুদ্ধে একটি স্থায়ী প্রতিরোধ ক্ষমতা তৈরি করা যেতে পারে এবং শরীরে ভালো পরিমাণে ইমিউনিটি সিস্টেম গড়ে তুলতেও সক্ষম এই টীকা।

মঙ্গলবার, একটি ভিডিও কনফারেন্সে রাশিয়ার রাষ্ট্রপতি বলেন, “আজ সকালে বিশ্বে প্রথমবার করোনার ভাইরাসের জন্য ভ্যাকসিন প্রস্তুত করা হয়েছে।” ভ্যাকসিন প্রকল্পে আর্থিক সহায়তা প্রদানকারী রাশিয়ান প্রত্যক্ষ বিনিয়োগ তহবিলের প্রধান কিরিল দামিত্রিয়েভ বলেছেন, এই ভ্যাকসিনের তৃতীয় পর্যায়ের ট্রায়ালগুলি বুধবার থেকে শুরু হবে এবং সেপ্টেম্বরের মধ্যে উৎপাদন হবে বলে আশা করা হচ্ছে। তিনি আরো বলেন, “আমরা গামালেয়া ইন্সটিটিউট দ্বারা নির্মিত রাশিয়ান ভ্যাকসিনের প্রতি প্রচুর আগ্রহ দেখেছি।” ইতিমধ্যেই ২০ টি দেশে এক বিলিয়নের বেশি এই ভ্যাকসিনের চাহিদা রয়েছে বলেও জানান তিনি। দামিত্রিয়েভ জানান, বিদেশী অংশীদারদের সাথে, রাশিয়া প্রতি বছর ৫ টি দেশে ৫০০ মিলিয়ন ডোজ উৎপাদন করতে পারে।