টিডিএন বাংলা ডেস্ক : মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্যে সেনা অভিযানের সময় আটক শিশুদের মুক্তি দেওয়ার আহ্বান জানিয়েছে জাতিসংঘের শিশুবিষয়ক সংস্থা ইউনিসেফ। দেশটির সরকারের প্রতি এ আহ্বান জানানো হয়েছে বলে এএফপির খবরে বলা হয়েছে।
জাতিসংঘের এক প্রতিবেদনে বলা হয়, মিয়ানমারে মুসলিম রোহিঙ্গাদের ওপর আক্রমণ শুরু হলে সেখান থেকে সত্তর হাজারের বেশি রোহিঙ্গা প্রতিবেশী বাংলাদেশে পালিয়ে যান। এ ছাড়া অনেকেই হত্যা ও নির্যাতনের শিকার হন এবং খাদ্যসংকটে পড়ে। অনেকেই আবার কারাবন্দী হন। তাঁদের মধ্যে অনেক শিশুও রয়েছে।
ইউনিসেফের উপনির্বাহী পরিচালক জাস্টিন ফরসিথ বলেন, মিয়ানমারের বুথিডং কারাগারে বেশ কিছু রোহিঙ্গা বন্দী আছেন; তাঁদের কথা তিনি অং সান সু চিকে জানিয়েছেন। মিয়ানমারে সফর করে গতকাল শনিবার তিনি এএফপিকে বলেন, ‘কারাগারে যাঁরা বন্দী আছেন, তাঁদের মধ্যে অনেক শিশুও আছে। সে বিষয়টি আমরা উত্থাপন করেছি। কোনো শিশু বন্দী থাকলে সেটি অবশ্যই আমাদের জন্য গুরুত্বপূর্ণ একটি বিষয়।’
জাস্টিন ফরসিথ আরও বলেন, নোবেল বিজয়ী সু চি এবং মিয়ানমারের সেনাপ্রধান—দুজনই বিষয়টি জানেন। কিন্তু তাঁদের মুক্তির জন্য তাঁরা কোনো উদ্যোগ নেননি।
এ বিষয়ে জানার জন্য রোববার এএফপির তরফ থেকে সরকারের মুখপাত্র জাও হেতের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলেও তিনি কোনো মন্তব্য করতে রাজি হননি।
এএফপির প্রতিবেদনে বলা হয়, দেশটির উত্তরে রোহিঙ্গা মুসলমানদের ওপর সেনা অভিযানে ছয় শতাধিক মানুষকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। গত অক্টোবরে পুলিশচৌকিতে জঙ্গি হামলার পর ওই অভিযান পরিচালিত হয়।