মুজাম্মিল লতিফি, টিডিএন বাংলা, আসাম: নৈতিক মূল্যবোধ কি শেষের পথে? সমাজকে লজ্জানত করা এক ঘটনা ঘটল আসামে। নিজের পর্নো ভিডিও সোশ্যাল সাইটে আপলোড করে পুলিশের হাতে গ্রেফতার হলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের এক অধ্যাপক। অসমের উচ্চ শিক্ষার প্রাণকেন্দ্র ডিব্রুগড় বিশ্ববিদ্যালয়ের ওই অধ্যাপকের অশ্লীল কার্যক্রমে চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে ইউনিভার্সিটিতে। কারণ, ভিডিও আপলোড করেছেন এই বিশ্ববিদ্যালয়ের গণিত বিভাগের সহকারি অধ্যাপক ধ্রুবজ্যোতি চৌধুরী। ভাইরাল হওয়া এই ভিডিওতে তাঁর সঙ্গে এক যুবতীও রয়েছে। যুবতীর সঙ্গে নিজের একাধিক ভিডিও আপলোড করেছেন ওই অধ্যাপক। নিজের পর্নো ভিডিও আপলোড করার দায়ে ধ্রুবজ্যোতিকে গ্রেফতার করেছে ডিব্রুগড় পুলিশ। ডিব্রুগড় বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার ড. হরিশচন্দ্র মোহন্তের এজাহারের ভিত্তিতে পুলিশ গতরাতে অধ্যাপক ধ্রুবজ্যোতিকে গ্রেফতার করে বলে জানা গেছে। পর্নো সাইটে নিজের ভিডিও আপলোড করেছেন অধ্যাপক ধ্রুবজ্যোতি, এই খবর পেয়ে বিভাগীয় তদন্ত শুরু করে ডিব্রুগড় বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। এ বিষয়ে নিশ্চিত হওয়ার পরই গত ২৬ জুন তারা অধ্যাপককে শোকজ করে। শোকজের জবাবে আত্মপক্ষ সমর্থনে ব্যর্থ হন অধ্যাপক। শোকজের জবাব পাওয়ার পর বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের মনে হয়, অধ্যাপকের কর্মকাণ্ড প্রতিষ্ঠানের সম্মান নষ্ট করেছে। তাই কাল বিলম্ব না করে বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার পুলিশের দ্বারস্থ হন। রেজিস্ট্রার সাংবাদিকদের জানান, বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের কাছে অধ্যাপক ধ্রুবজ্যোতির পাঁচটি পর্নো ভিডিও রয়েছে। এনিয়ে একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। আগামী 8৮ ঘন্টার মধ্যে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ অধ্যাপক ধ্রুবজ্যোতি চৌধুরীর চাকরির ভবিষ্যত নিয়ে নিজেদের সিদ্ধান্ত ঘোষনা করবে। এদিকে, ডিব্রুগড় পুলিশ সদর থানায় মামলা রুজু করে ২৯৪এ, ৫০০ ও ৫০৬ ধারায় অধ্যাপককে গ্রেফতার করে জেরা অব্যাহত রেখেছে। প্রাথমিক জেরায় নিজের অপকর্মের কথা স্বীকার করে নিয়েছেন অধ্যাপক। পুলিশ সুত্রে জানা গেছে, তিন বছর আগে গুয়াহাটির এক হোটেলে এই ভিডিও রেকর্ডিং করা হয়েছিল। তাঁর স্বীকারোক্তির ভিত্তিতে শহরের আমোসাপট্টী থেকে ভিডিও তোলা ক্যামেরাটি উদ্ধার করেছে পুলিশ। বাজেয়াপ্ত করা হয়েছে অধ্যাপকের মোবাইল ও ল্যাপটপ। ডিব্রুগড়ের এসপি শ্রী জিৎ টি সাংবাদিকদের জানিয়েছেন, পর্নো ভিডিওতে বিশ্ববিদ্যালয়ের কোনো ছাত্রী জড়িত নয়। তবে এই রকম নোংরা মানসিকতার অধ্যাপকের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে সরব ছাত্র সমাজ।