মুজাম্মিল লতিফি, টিডিএন বাংলা, আসাম: মহামারি করোনার থাবা বিশ্বব্যাপী। অসমেও চলছে করোনার তাণ্ডব। করোনাকে প্রতিহত করতে সমগ্র বিশ্বের সাথে অসমেও চলছে যুঁজ। প্রতিটি মুহুর্তে চলছে স্বাস্থ্য বিভাগের সাথে জড়িত লোকদের দৌঁড়ঝাপ। জীবন-মরণের তোয়াক্কা না করেই আশা কর্মী থেকে শুরু করে স্বাস্থ্য বিভাগের সাথে জড়িতরা রাত-দিন একাকার করেই চলছেন। কিন্তু করোনার বিরুদ্ধে চলা যুদ্ধের সময়েই প্রাথমিক পর্যায়ের কর্মী হিসেবে পরিচিত আশা কর্মীরা অসমের স্বাস্থ্য মন্ত্রীর সমষ্টির পাণ্ডুতে প্রতিবাদ করলেন। তাদের অভিযোগ, রাত-দিন একাকার করেই কর্ম করার পরও প্রাপ্য মজুরি থেকে বঞ্চিত আশা কর্মীরা। করোনার ভয়াবহতা এবং আশা কর্মীদের ব্যাস্ততার উপর লক্ষ্য রেখে রাজ্য সরকার ৩ মাসের জন্য অতিরিক্ত এক হাজার টাকা করে দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েছিল। কিন্তু প্রথম মাস তাদের টাকা দেওয়ার পর যেন দায়িত্ব শেষ হল স্বাস্থ্য বিভাগের। দ্বিতীয় মাস থেকেই টাকা দেওয়ার সামর্থ নেই বলে উর্ধতন কর্তৃপক্ষ জানালো, এমন অভিযোগ আশা কর্মীদের। আর এতেই ক্ষিপ্ত হয়েই প্রতিবাদে নামেন আশা কর্মীরা। তাদের কথায়, অনাগত দিনে যদি এই প্রাপ্য টাকা থেকে তাদের বঞ্চিত করা হয়, তাহলে কর্মবিরতি ঘোষনা করবেন তারা। সাথে অন্যান্য কর্মচারিদের মতো প্রাথমিক সুবিধা সমূহের দাবিও জানিয়েছেন তারা।