টিডিএন বাংলা ডেস্ক: করোনা রিপোর্ট না হওয়া পর্যন্ত হবে না চিকিৎসা! টানা ২০ ঘন্টা ধরে যন্ত্রনায় কাতরাতে কাতরাতে মৃত সন্ধান প্রসব করলেন গর্ভবতি মহিলা।এমনই মর্মান্তিক চিত্র ধরা পড়লো উত্তরপ্রদেশের কানপুরের হেলট হাসপাতালে। সংবাদমাধ্যম সূত্রে জানা যায়, এদিন পেটের মধ্যে বাচ্চার মুভমেন্ট আচমকা বন্ধ হয়ে যাওয়ায় শ্বশুরবাড়ি থেকে ওই মহিলাকে স্থানীয় হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। কিন্তু সেখান থেকে হেলট হাসপাতালে তাকে রেফার করা হয়।

মহিলার বাবার অভিযোগ, ফাইল বানানোর নাম করে কয়েক ঘণ্টা কেটে যায় ৷ তারপর তার মেয়েকে করোনা আক্রান্ত মনে করায় তাকে করোনা ওয়ার্ডে ভর্তি করা হয় ৷ উপস্থিত চিকিৎসকেরা জানান, করোনা টেস্ট হবে এবং তার রিপোর্ট আসার পরই চিকিৎসা করা হবে। সেসময় কার্যত গোটা রাতই যন্ত্রনায় ছটফট করতে থাকেন মহিলা। অনেক পরে প্রসবের জন্য ব্যাথার ওষুধ দিলেও রাত ১:৩০ মিনিটে মহিলার করোনা রিপোর্ট নেগেটিভ আসতেই শুরু হয় প্রসব প্রক্রিয়া। তারপরেই মৃত সন্তানের জন্ম দেয় মহিলা। ইতিমধ্যেই হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে পরিবার অভিযোগ দায়ের করলেও কার্যত সেই অভিযোগ অস্বীকার করেছে কর্তৃপক্ষ।