টিডিএন বাংলা ডেস্ক: ভারত-চিন সীমান্ত উত্তেজনার আবহেই বাংলাদের সীমান্তবর্তী মেঘালয়ের চারটি গ্রাম বাংলাদেশে যেতে দেওয়া দাবি জানাল। তবে এমনি এমনি নয়, একটি পাকা রাস্তা নির্মাণের দাবিতেই ওই আদিবাসী গ্রামের বাসিন্দারা এই মনোভার প্রকাশ করেছেন। হিংগড়িয়া, হুরোই, লেহালিন ও তেজরি গ্রামের আদিবাসীদের অভিযোগ, রামবায়-বাতাও ভায়া সোনাপুরের ওই রাস্তা নির্মাণের জন্য কেন্দ্র ও রাজ্য সরকারের দৃষ্টি আকর্ষণ করা হচ্ছে তারপরেও সরকারের কোনও হেলদোল নেই। বেহাল রাস্তার জন্য মানুষের জীবনযাত্রা মান অত্যন্ত করুণ অবস্থায় রয়েছে। অর্থনৈতিক কর্মকাণ্ড ও উন্নয়নের ছিঁটেফোঁটা নেই বলেও তাঁদের অভিযোগ।

না আছে রাস্তা, না মোবাইল যোগাযোগ। এমনকী ভালো চিকিৎসা পরিষেবাও পাচ্ছেন তা ওই চার গ্রামের প্রায় পাঁচ হাজার মানুষ। পরিস্থিতি এতটাই খারাপ যে বাংলাদেশের উপরেই নির্ভর করতে হতে পারে বলেও মনে করেন আদিবাসীরা। চার গ্রামের আদিবাসীদের মুখপাত্র কিনজাইমন আমসে বলেন, সরকারের কাছে সীমান্তবর্তী মানুষদের জীবনের কোনও মূল্য নেই। শুধুমাত্র ভোটের জন্যেই আমাদের ব্যবহার করা হয়।

সরকার যদি আমাদদের ভারতীয় হিসাবে বিবেচনা করে তবে অবশ্যই আমাদের সমস্যাকে গুরুত্ব দিতে হবে। যদি তা না হয় তবে মানুষের চরম পদক্ষেপ গ্রহণ করা ছাড়া উপাই নেই। জানা গিয়েছে, ওই আদিবাসীরা বাংলাদেশ সরকারের কাছে রাস্তা নির্মাণের জন্য জন্য অনুরোধেরও সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। (সৌজন্যে:পুবের কলম)