টিডিএন বাংলা ডেস্ক: পরীক্ষা হলেই বেশি রোগী ধরা পড়বে। তাই করোনা পরীক্ষা কম হচ্ছে! এমনই চিত্র উঠে এলো নরেন্দ্র মোদী ও অমিত শাহের রাজ্য গুজরাটে। সেই তথ্যের সত্যতাও কার্যত স্বীকার করে নিয়েছে গুজরাট সরকার। সরকারের যুক্তি বেশি পরীক্ষা হলে ৭০ শতাংশই পজ়িটিভ বেরোবে। তাতে মানুষের মধ্যে আতঙ্ক ছড়াবে।

উল্লেখ্য, করোনা- সংক্রমনের সংখ্যায় দেশের মধ্যে মহারাষ্ট্র ও তামিলনাড়ুর পরেই রয়েছে গুজরাট। মৃতের সংখ্যার বিচারেও মহারাষ্ট্রের পরেই স্থান। ঠিক এই পরিস্থিতিতে গুজরাটের আহমেদাবাদে করোনার পর্যাপ্ত পরীক্ষা হচ্ছে না কেন তো নিয়ে প্রশ্ন তোলে রাজ্যের হাসপাতাল ও নার্সিংহোমগুলোর যৌথ সংগঠন। স্বাস্থ্যসচিবের কাছে পরীক্ষার অনুমতি চাইলেও ঠিকমতো সাড়া না মেলা, মিললেও তিন দিন পর তাও আবার শতকরা ১০ থেকে ২০ শতাংশ পাচ্ছেন বলে অভিযোগ। বিষয়টি নিয়ে ও পরীক্ষা- নীতি বদলের দাবি জানিয়ে হাইকোর্টে মামলাও দায়ের করা হয়েছে। কিন্তু সেখানেই গুজরাত সরকারের অ্যাডভোকেট জেনারেল কমল ত্রিবেদী জানিয়েছেন, ‘পরীক্ষা ইচ্ছাকৃত ভাবেই কম করানো হচ্ছে!’ এদিকে করোনা পরীক্ষা কম করার ঘটনা ও বক্তব্য প্রকাশ্যে আসতেই রীতিমতো রাজনৈতিক মহলে বিতর্কের সৃষ্টি হয়েছে।