টিডিএন বাংলা ডেস্ক: সোমবার দিনভর শচীন পাইলটের কংগ্রেস ছেড়ে চলে যাওয়ার সম্ভাবনা নিয়ে চলতে থাকা জল্পনার জেরে বিক্ষুব্ধ রাহুল গান্ধী শেষ মুখ খুললেন টুইটারে। যদিও রাজস্থানে কংগ্রেস সরকারের বিজেপির হাতে নতি স্বীকার এর সম্ভাবনা নিয়ে চলতে থাকা জল্পনার বিষয়ে সরাসরি কোন মন্তব্য করেননি রাহুল। এদিন সন্ধ্যের পর টুইটারে তিনি লেখেন,”আজ ভারতীয় সংবাদমাধ্যমের একটি বড় অংশ ফ্যাসিবাদী স্বার্থের দ্বারা বন্দি হয়েছে। টেলিভিশন চ্যানেল, হোয়াটসঅ্যাপ ফরওয়ার্ড এবং ভূয়ো সংবাদ দ্বারা একটি ঘৃণা ভরা গল্প ছড়িয়ে দেওয়া হচ্ছে। এই মিথ্যা বিবরণটি ভারতকে ছিন্ন করে দিচ্ছে।”

এরপর অপর একটি ট্যুইট করে রাহুল গান্ধী বলেন,”আমি আমাদের বর্তমান বিষয়গুলি, ইতিহাস এবং সংকটকে সত্যাগ্রহী দের জন্য পরিষ্কার এবং ব্যবহারযোগ্য করে তুলবো। আগামীকাল থেকে আমি ভিডিওতে আপনার সাথে আমার চিন্তাভাবনা গুলি ভাগ করব।”

রাহুল গান্ধীর এই ট্যুইটটি পাওয়ার পরে অনেকেই মনে করেছেন রাহুল গান্ধী, প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির মতোনই নিজের ”মন কি বাত” অনুষ্ঠানের সূচনা করতে চলেছেন। প্রসঙ্গত গত বছর অক্টোবর মাসে কংগ্রেসের পক্ষ থেকে ঘোষণা করা হয়েছিল সোশ্যাল মিডিয়ায় “দেশ কি বাত” নামে এধরনের একটি অনুষ্ঠান সম্প্রচার করা হবে। এর আগেও রাহুল গান্ধী এবং কংগ্রেসের পক্ষ থেকে বারবারই মোদি সরকারের বিরুদ্ধে ভুয়া সংবাদ ছড়িয়ে দেওয়ার অভিযোগ তোলা হয়েছে। এর আগেও তারা অভিযোগ করেছেন মোদি সরকার হোয়াট্সঅ্যাপ ফরওয়ার্ড এর মাধ্যমে বিভিন্ন ধরনের নতুন নতুন বিতর্কের উদ্ভাবন করছেন এবং ফ্যাসিবাদী হিসেবে অভিনয় করছেন।

গত সপ্তাহেও রাহুল গান্ধী ট্যুইট করেন,”মিস্টার মোদি বিশ্বাস করেন যে পৃথিবী তাঁর মত। তিনি ভাবেন যে প্রত্যেকের দাম আছে বা তাঁকে ভয় দেখানো যেতে পারে। তিনি কখনোই বুঝতে পারবেন না যে যাঁরা সত্যের পক্ষে লড়াই করেন তাঁদের কোন মূল্য নেই এবং তাঁদের ভয় দেখানো যায় না।”