টিডিএন বাংলা ডেস্ক: এ বছরের ফেব্রুয়ারি মাসে দিল্লিতে ভয়াবহ দাঙ্গার ঘটনার তদন্তের নামে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকের নিয়ন্ত্রণাধীন দিল্লি পুলিশ সম্পূর্ণ অবৈধ ভাবে বিশিষ্ট বুদ্ধিজীবী, সমাজকর্মী, চিকিৎসক, অধ্যাপক, দাঙ্গায় আক্রান্ত মানুষের বিরুদ্ধে সাজানো মামলা দায়ের করছে বলে অভিযোগ করছে সিপিএম। দলটির অভিযোগ, এক্ষেত্রে কোনো আইনসঙ্গত পদ্ধতিই অবলম্বন করা হচ্ছে না। জানা গেছে, এই মামলার অতিরিক্ত চার্জশিটে সিপিআই(এম)-র সাধারণ সম্পাদক সীতারাম ইয়েচুরি, অর্থনীতিবিদ জয়তী ঘোষ, অধ্যাপক অপূর্বানন্দ, সমাকর্মী যোগেন্দ্র যাদব, তথ্যচিত্র নির্মাতা রাহুল রায়ের নামে অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। বামেদের অভিযোগ, সাক্ষ্যপ্রমাণ বিকৃত করে, রাজনৈতিক প্রভুদের নির্দেশে মনগড়া এই অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। সিপিএম বলছে, সিএএ-এনআরসি বিরোধী আন্দোলনে অংশ নেওয়াকেই ‘দাঙ্গায় প্ররোচনা’ ও ‘ষড়যন্ত্র’ বলে চিহ্নিত করা হয়েছে। সিপিএম বিধায়ক সুজন চক্রবর্তী এই ঘটনার নিন্দা করে বলেন, বিরোধিতার সমস্ত কণ্ঠস্বরকে দমন করতে কেন্দ্রের সরকার তৎপর। ফ্যাসিস্তসুলভ পদক্ষেপ নিয়ে তারা গণতন্ত্রকে আক্রমণ করতে চাইছে। সিপিএম রাজ্য সম্পাদক সূর্যকান্ত মিশ্র বলেন, কেন্দ্রীয় সরকারের এই চক্রান্তের তীব্র ও সর্বাত্মক প্রতিবাদে সরব হতে হবে। রবিবার থেকেই সারা রাজ্যে প্রতিবাদের কর্মসূচি নিতে আমরা আহ্বান জানাচ্ছি। সমস্ত বামপন্থী, গণতান্ত্রিক, ধর্মনিরপেক্ষ শক্তি ও ব্যক্তির কাছে আমাদের আহ্বান,এই আক্রমণের বিরুদ্ধে সোচ্চার হোন।
যদিও বিজেপি সভাপতি দিলীপ ঘোষ সিপিএমের এই অভিযোগ খারিজ করে দিয়ে পুলিশের পক্ষ নিয়েছেন।