Rahul Gandhi
Screenshot taken from twitter account of Rahul Gandhi

টিডিএন বাংলা ডেস্ক: শুক্রবার প্রকাশিত গ্লোবাল হাংগার ইনডেক্স ২০২০ অনুযায়ী ভারত বিশ্বের ১০৭ টি দেশের মধ্যে ৯৪ তম স্থানে রয়েছে। ওই রিপোর্ট অনুসারে ভারতের ক্ষুধার মাত্রা ২৭.২, যা গুরুতর। শুধু তাই নয়, ভারতের মোট জনসংখ্যার ১৪ শতাংশ পুষ্টিহীন।গ্লোবাল হাংগার ইনডেক্স অনুযায়ী ভারত পিছিয়ে রয়েছে ইন্দোনেশিয়া(৭০), নেপাল(৭৩), পাকিস্তান(৮৮), বাংলাদেশ(৭৫), মতো দেশগুলির থেকে। এই রিপোর্টে হাতিয়ার করে ফের কেন্দ্রকে নিশানা করেছে কংগ্রেস সাংসদ রাহুল গান্ধী।

একটি টুইট করে এদিন কংগ্রেসের প্রাক্তন সভাপতি রাহুল গান্ধী লেখেন,”ভারতের গরিবরা ক্ষুধার্ত, কারণ সরকার শুধুমাত্র নিজের কিছু বন্ধুদের পকেটভর্তি করতেই ব্যস্ত রয়েছে।”

প্রসঙ্গত বিগত বছরগুলির তুলনায় এ বছর ভারতের র‍্যাংকিং তুলনামূলকভাবে ভালো হয়েছে।এর আগে, ২০১৯ সালে গ্লোবাল হাংগার ইনডেক্সে ১১৭ টি দেশের মধ্যে ভারতের র‍্যাঙ্ক ছিল ১০২। এর আগে ২০১৮ সালে গ্লোবাল হাংগার ইনডেক্সে ১১৯ টি দেশের মধ্যে ১০৩ তম স্থান অধিকার করেছিল ভারত। তবে এখানে উল্লেখ্য বিষয় হলো ২০১৯ এবং ২০১৮ সালের তুলনায় ২০২০ সালে কিছু দেশের সংখ্যা কমেছে। এর আগে, ২০১৭ সালে ১০০ তম স্থানে, ২০১৬ সালে ৯৭ তম স্থানে এবং ২০১৫ সালে ৯৩ তম স্থানে ছিল ভারত। তবে, এই দীর্ঘ রিপোর্টে এই বিষয়টি স্পষ্ট যে ভারতে অনাহার এবং অপুষ্টির বিষয়টি লাগাতার বর্তমান রয়েছে।

এ প্রসঙ্গে রাহুল গান্ধী আরও লেখেন,” ভারতের গ্লোবাল হাংগার ইনডেক্স র‍্যাঙ্কিং ২০১৪ সাল থেকে লাগাতার হ্রাস হচ্ছে, এবার এটা ১০২/১১৭ হয়ে গেছে। এই র‍্যাঙ্কিংয়ের মাধ্যমে সরকারের বড় মাত্রায় অসফলতা প্রকাশ পায় এবং প্রধানমন্ত্রী মোদির সবার সাথ, সবার বিকাশের ফাঁকা দাবি উন্মোচিত হয়েছে।”