টিডিএন বাংলা ডেস্ক: শুক্রবার দুপুর তিনটেয় নির্দেশিকা মেনেই প্রকাশিত হলো আইসিএসই ও আইএসসি-র দশম এবং দ্বাদশ শ্রেণীর ফলাফল। সিআইএসসিই- এর সরকারি ওয়েবসাইটে দেখা যাচ্ছে ফলাফল। যদিও এখনই রেজাল্ট হাতে পাবেননা ছাত্রছাত্রীরা। করোনা আবহের পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে দেওয়া হবে রেজাল্ট। তবে কাউন্সিলের দুই ওয়েবসাইট থেকেই রেজাল্ট দেখে নেওয়ার পর প্রিন্ট আউট নিয়ে নেওয়া যাবে। করোনা আবহে এবছর পড়ুয়াদের জন্য ডিজিটালাইজ্ড মার্কশিটের ব্যবস্থা করেছে বোর্ড। রেজাল্ট দেখতে পাওয়া যাবে www.cisce.org কিংবা www.results.cisce.org ওয়েবসাইটে। এসএমএস এর মাধ্যমে রেজাল্ট পেতে হলে ফোনের মেসেজ বক্সে গিয়ে টাইপ করতে হবে ICSE বা ISC। এর পর একটা স্পেস দিয়ে নিজের সাতটি ডিজিটাল আইডি নম্বর লিখে মেসেজটি পাঠিয়ে দিতে হবে ০৯২৪৮০৮২৮৮৩ নম্বরে।

বোর্ড সূত্রে জানা গেছে, এবছর আইসিএসইতে পাস করেছেন দু’লক্ষেরও বেশি পরীক্ষার্থী। অকৃতকার্য হয়েছেন এক হাজারের কিছু বেশি ছাত্র-ছাত্রী।

সারাদেশে আইএসসি দ্বাদশ শ্রেণির পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করেছিলেন ৮৮,৪০৯ জন পড়ুয়া। যার মধ্যে ৪৭,৪২৯ জন ছেলে ও ৪০,৯৮০ জন মেয়ে পরীক্ষার্থী ছিলেন। মোট কৃতকার্য পরীক্ষার্থীর সংখ্যা ৮৫,৬১১ জন। অকৃতকার্য পরীক্ষার্থীর সংখ্যা ২,৭৯৮।

পশ্চিমবঙ্গ থেকে এবছর আইএসসি দ্বাদশ শ্রেণির পরীক্ষার বসেছিলেন ২৫,৪৫৩ জন পরীক্ষার্থী। যার মধ্যে ১৩,৮০০ জন ছেলে এবং ১১,২৫৮ জন মেয়ে পরীক্ষার্থী ছিলেন। এ রাজ্য থেকে পরীক্ষায় কৃতকার্য হয়েছেন ২৪,৪৫৩ জন। অকৃতকার্য হয়েছেন ৬০৫ জন।

প্রসঙ্গত এবছর ফলাফলের পর যেহেতু আবারো পরীক্ষা দেওয়ার সুযোগ থাকছে এবং তার সাথে স্ট্যাটিসটিক্যাল ফর্মুলাতে ফল প্রকাশ করা হচ্ছে বলে কোন মেধা তালিকা প্রকাশ করল না বোর্ড। বোর্ড এর তরফ থেকে জানানো হয়েছে,এবছর দশম শ্রেণী প্রত্যেকটি বিষয়ে পাশ করতে গেলে ছাত্র-ছাত্রীদের প্রয়োজন ছিল ৩৩ নম্বর এবং দ্বাদশ শ্রেণীর প্রতিটি ক্ষেত্রে করতে গেলে পেতে হতো ন্যূনতম ৪০ নম্বর।