টিডিএন বাংলা ডেস্ক: ৩৭০ রদ করেও কাশ্মীর পরিস্থিতির কোনো পরিবর্তন হয়নি। কেন্দ্রের বিজেপি সরকারকে ঠিক এভাষাতেই তোপ দিলো শিবসেনা । শুক্রবার শিবসেনার তরফে অভিযােগ করা হয়েছে, জম্মু- কাশ্মীর থেকে ৩৭০ অনুচ্ছেদ রদ করেও কোনও লাভ হয়নি। কাশ্মীর পরিস্থিতির কোনও পরিবর্তন হয়নি। কীভাবে কেন্দ্রীয় সরকার ৩৭০, ৩৫-এ ধারা বিলােপ করে জম্মু-কাশ্মীরকে দু’টি কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলে বিভক্ত করেছে তা নিয়েও প্রশ্ন তুলেছে শিবসেনা। পাশাপাশি জম্মু-কাশ্মীরে নিরবচ্ছিন্ন জঙ্গি কার্যকলাপের জন্য কেন্দ্রের সরকারকে বিধেছে তারা। শিবসেনার মুখপত্র সামনা’র সম্পাদকীয়তে লেখা হয়েছে, ৩৭০ অনুচ্ছেদ রদ করার পরও এবং জম্মু-কাশ্মীরকে দু’টি কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলে ভাগ করার পরও এখন স্থিতাবস্থা এমনই। প্রতিদিন এখন সেখানে রাস্তায় রক্তর দাগ। প্রাণ যাচ্ছে নিরীহ মানুষদের। নােটবন্দি সত্ত্বেও সেখানে জঙ্গি কার্যকলাপ ও জাল নােট ছড়ানােয় কোনও ভাটা পড়েনি। উত্তর কাশ্মীরের সােপােরে জঙ্গিহানায় এক সিআরপিএফ জওয়ান ও এক নাগরিকের নিহত হওয়ার ঘটনা উল্লেখ করে সামনায় লেখা হয়েছে, নিহত দাদুর মৃতদেহর পাশে তার তিন বছরের নাতির বসে থাকার ছবি বিধ্বস্ত আফগানিস্তান ও সিরিয়াকে মনে করিয়ে দেয়। কাশ্মীরে নাশকতা নিয়ে কেন্দ্রকে দোষারােপ করে শিবসেনা বলেছে, এই মর্মান্তিক ছবি পৃথিবীর কাছে ভারতের ভাবমূর্তিকে ক্ষুন্ন করেছে। এপ্রসঙ্গে সামনায় লেখা হয়েছে, ছােট্ট একরত্তি শিশুটি তার নিহত দাদুকে ওঠানাের চেষ্টা করছিল। কয়েকজন কেন্দ্রীয় মন্ত্রীও ছবিটি টুইট করেছেন। ওইসব মন্ত্রীর এটা বােঝা উচিত যে, এই ছবি কেন্দ্রীয় সরকারের ব্যর্থতাকে তুলে ধরে। কাশ্মীর উপত্যকায় নিরাপত্তা সংক্রান্ত বিষয়ে কেন্দ্রীয় সরকারের দায়বদ্ধতা রয়েছে। এই ধরনের ছবি যুদ্ধবিধ্বস্ত সিরিয়া মিশর, সােমালিয়া ও আফগানিস্তানের সঙ্গে সদৃশ্যপূর্ণ যা আন্তর্জাতিক মঞ্চে ভারতের ভাবমূর্তির পক্ষে ভালাে নয়। উপত্যকায় এই ধরনের জঙ্গি কার্যকলাপের জন্য কেন্দ্রীয় সরকারের বিশেষ করে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহর সমালােচনা করেছে শিবসেনা। শিবসেনার অভিযােগ, শাহ স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকের দায়িত্ব নেওয়ার পরই উপত্যকায় জঙ্গি কার্যকলাপ বেড়েছে। শিবসেনার অভিযােগ, গত ৬ মাসে উপত্যকায় অনুপ্রবেশ বেড়েছে। যদিও গত কয়েক মাসে আমাদের জওয়ানরা অনেক জঙ্গিকে খতম করেছে। আমাদের সেনাদের আত্মবলিদান দেওয়ার ঘটনাও কম নয়। উপত্যায় এখন ১৭০ জনের বেশি সক্রিয় জঙ্গি রয়েছে।