টিডিএন বাংলা, চেন্নাই : তামিলনাড়ুর প্রয়াত মুখ্যমন্ত্রী জয়ললিতার মরদেহ মারীনা বীচে ওনার রাজনৈতিক গুরু এমজি রামচন্দ্রনের সমাধির পাশে সমাধিস্থ করা হল। আম্মার শেষকৃত্য রাজকীয় সম্মানের সহিত করা হয়। এই সমাধি পর্ব শেষ হতে না হতেই সবার মনে প্রশ্ন উঠেছে যে, জয়ললিতাকে দাহ না করে কবরস্থ কেন করা হল ? নিয়মিত প্রার্থনা করা এবং মাথায় একধরনের বিশেষ তিলক পরা জয়ললিতাকে কবর দেওয়ার সিদ্ধান্ত কেন নেওয়া হল কী কারণে ? জয়ললিতা একজন আয়ঙ্গর ব্রাহ্মন হিসাবে জন্মগ্রহণ করেছেন, যাদের মধ্যে রয়েছে দাহ করার প্রথা।

ওনাকে কবরস্থ করার ব্যাপারে দলের লোক এর কারণ হিসাবে দ্রাবিড় আন্দোলনের কথা তুলে ধরেন। দ্রাবিড় আন্দোলনের সঙ্গে যুক্ত নেতারা নাস্তিক হন এবং তারা ইশ্বরে বিশ্বাস করেন না। দ্রাবিড় আন্দোলনের পেরিয়ার, আন্না দুরাই, এবং এমজি রামচন্দ্রনের মত বড় বড় নেতাদেরও কবরস্থ করা হয়েছে আগেও। এই জন্য আম্মার শেষকৃত্যের সময় ও চন্দনের কাঠ দিয়ে তৈরী কফিনে ভরে গোলাপ জল দিয়ে মাটির নীচে কবর দেওয়া হয়।

আসলে বড় নেতাদের সমাধি করার পর তাদের কবরে ভক্তকুল যাতায়াত করে তাদের মনে রাখে সর্বদা। তাই আম্মার কবর তার হাজার হাজার সন্তানের কাছে একটি স্বারক হয়ে থাকবে আজীবন।