টিডিএন বাংলা ডেস্ক: মহিলা টি-২০ বিশ্বকাপে হার ভারতের, পঞ্চমবারের জন্য ট্রফি ছিনিয়ে নিল অস্ট্রেলিয়া। ফাইনালে ১৮৫ রানের লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে মাত্র ৯৯ রানেই তাসের ঘরের মত ভেঙে পড়ল শেফালিরা| যার ফলে রবিবার মেলবোর্নে ৮৫ রানে ভারতকে হারিয়ে পঞ্চম টি-২০বিশ্বকাপ ঘরে তুলল অস্ট্রেলিয়া|

ঠিক যেন ২০০৩ বিশ্বকাপের ফাইনালের অ্যাকশন রিপ্লে। ১৭ বছর পরে মহিলা বিশ্বকাপের ফাইনালেও সৌরভদের মতো সেই একই পরিস্থিতির সামনে হরমনপ্রীত কৌরের ভারত। রবিবার টি-২০ বিশ্বকাপের ফাইনালে টসে জিতে প্রথমে প্রথমে ব্যাট করে বিশাল রানের ইনিংস খেলল অস্ট্রেলিয়া। এদিন ব্যাট করতে নেমে প্রথম ওভারেই দীপ্তি শর্মাকে তিনটি চার মারেন হিলি। কিন্তু তাঁর মধ্যেই ক্যাচ তুলেছিলেন। কভারে শেফালি বর্মা তা ফসকান। বেথ মুনির ক্যাচ ছাড়েন রাজেশ্বরী গায়কোয়াড়। জীবন পাওয়ার পর ভয়ডরহীন ক্রিকেট খেলা শুরু করলেন দুই ওপেনার। কোনও বোলারকেই রেয়াত করলেন না তাঁরা। বেশি আক্রমণাত্মক দেখাচ্ছিল হিলিকে। শেষ পর্যন্ত ৩৯ বলে ৭৫ করে রাধা যাদবের বলে আউট হন হিলি। ৭টি চার ও ৫টি ছক্কা মারেন তিনি। তারপরে মেগ ল্যানিং, অ্যাশলি গার্ডনাররা অবশ্য বেশি রান পাননি। যদিও নিজের খেলা চালিয়ে যান বেথ মুনি। ৫৪ বলে ৭৮ করে নটআউট থাকেন তিনি। ২০ ওভারে ৪ উইকেট হারিয়ে ১৮৪ রান তোলে অস্ট্রেলিয়া। ভারতের হয়ে চলতি বিশ্বকাপে দারুণ বল করা শিখা পাণ্ডে ৪ ওভারে ৫২ রান দেন। দীপ্তি শর্মা ২টি, পুনম পাণ্ডে ও রাধা যাদব ১টি করে উইকেট পান।

এই রানও তাড়া করা সম্ভব ছিল যদি ভারতের টপ অর্ডার রান করত। কিন্তু তা হল না। তাসের ঘরের মত ভেঙে পড়ল ভারতের টপ অর্ডার। চলতি সিরিজে দুরন্ত ছন্দে থাকা শেফালি বর্মাও এদিন ব্যর্থ হলেন। ফিল্ডিং করতে গিয়ে অ্যালিসা হিলির ক্যাচ ছাড়ার প্রভাব হয়তো পড়ল তাঁর ব্যাটিংয়ে। শেফালি, স্মৃতি, জেমাইমা, তানিয়া ও হরমনপ্রীত কেউই রান পাননি। বিশ্বকাপে একটাও ম্যাচে রান করতে পারলেন না স্মৃতি মান্ধানা ও হরমনপ্রীত কৌর। অথচ তাঁদের উপরেই ভরসা ছিল সবথেকে বেশি। কিছুটা চেষ্টা করেন দীপ্তি শর্মা। তাঁর ৩৩ ভারতীয়দের মধ্যে সর্বোচ্চ রান। বেদা কৃষ্ণমূর্তি ১৭ ও রিচা ঘোষ ১৮ করেন। শেষ পর্যন্ত ১৯.১ ওভারে ৯৯ রানে অলআউট হয়ে যায় ভারত। ৮৫ রানের বিশাল ব্যবধানে ম্যাচ জিতল অস্ট্রেলিয়া। অজি বোলারদের মধ্যে মেগান শ্যুট ৪টি ও জেস জোনাসন ৩টি উইকেট নেন।

ভারত এই প্রথম বার উঠেছিল মহিলা বিশ্বকাপের ফাইনালে। ক্যাপ্টেন হরমনপ্রীত কৌরের আবার রবিবারই জন্মদিন ছিল। চলতি বিশ্বকাপে গ্রুপ স্টেজে ভারতের পারফরম্যান্স দেখে নারী দিবসে ভারতীয় মহিলাদের হাতে কাপ দেখার আশা জেগেছিল সমর্থকদের মনে। টস হেরে হরমনপ্রীত বলেছিলেন, “আমরাও প্রথমে ব্যাট করতে চেয়েছিলাম। তবে রান তাড়া করার আত্মবিশ্বাস রয়েছে দলে। তাই বোলাররা নিজেদের দায়িত্ব ঠিকঠাক পালন করলেই চলবে।” কিন্তু তা হল কোথায়। ব্যাটিং-বোলিং-ফিল্ডিং, তিন বিভাগেই ভারতকে টেক্কা দিল অস্ট্রেলিয়া। ফাইনালে স্বপ্নভঙ্গ হল ভারতের। ফের একবার খালি হাতেই ফিরতে হল বিশ্বকাপের মঞ্চ থেকে।