স্পোর্টস ডেস্ক, টিডিএন বাংলা : তিন ম্যাচ টেস্ট সিরিজের প্রথম ম্যাচের প্রথম দিনের মতো দ্বিতীয় দিনও ব্যাকফুটে থেকে শেষ করেছে কোহলিরা। সফরকারী শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ব্যাটিয়ে নেমে ৩২.৫ ওভারে টপঅর্ডারের পাঁচ উইকেট হারিয়ে টিম ইন্ডিয়া তুলেছে মাত্র ৭৪ রান। এরপরই বৃষ্টি নামলে দ্বিতীয় দিনের খেলা বন্ধ হয়ে যায়।


বৃহস্পতিবার ইডেন গার্ডেনসে মাঠে নেমেছিল ভারত-শ্রীলঙ্কা। প্রথম দিন ১১.৫ ওভারে মাত্র ১৭ রান তুলে ভারত হারায় তিন উইকেট। শুক্রবার আরও দুটি উইকেট হারিয়েছে কোহলির দল।
আগে ব্যাটিংয়ে নেমে ভারতের তিন ব্যাটসম্যানকেই ফিরিয়ে দেন লঙ্কান পেসার সুরাঙ্গা লাকমল। ওপেনার লোকেশ রাহুল সাজঘরে ফেরার আগে কোনো রানই করতে পারেননি। ইনিংসের প্রথম বলেই উইকেট হারায় ভারত। আরেক ওপেনার শিখর ধাওয়ান সপ্তম ওভারে বিদায় নেওয়ার আগে করেন ৮ রান।
তিন নম্বরে নামা চেতশ্বর পূজারা ৪৩ বলে দুটি চারের সাহায্যে ৮ রান করে অপরাজিত থাকেন। দ্বিতীয় দিন শেষে ১০২ বল মোকাবেলা করে তিনি অপরাজিত আছেন ৪৭ রানে। আজিঙ্কা রাহানে শূন্য রানে অপরাজিত ছিলেন। দ্বিতীয় দিন ব্যক্তিগত ৪ রান করে সাজঘরের পথ ধরেন। প্রথম দিনই বিদায় নেন দলপতি বিরাট কোহলি। ১১ বল মোকাবেলা করলেও কোনো রান পাননি তিনি। দ্বিতীয় দিন ব্যাট হাতে নামা রবিচন্দ্রন অশ্বিন ২৯ বলে ৪ রান করে বিদায় নেন। ৬ রানে অপরাজিত আছেন রিদ্ধিমান সাহা।
প্রথম দিন লাকমল ৬ ওভারে তিন উইকেট দখল করেন। এই ৬ ওভারে একটিও রান খরচ করেননি তিনি। অবাক করার মতো ব্যাপার হলো দ্বিতীয় দিনও তার বোলিংয়ের ধার কমেনি। নিজের করা ৪৬ ডেলিভারিতে কোনো রানই খরচ করেননি তিনি। ২০০১ সালের পর এটিই টেস্ট ফরমেটে সেরা পারফরম্যান্স। এর আগে ২০১৫ সালে জ্যামাইকা টেস্টে ওয়েস্ট ইন্ডিজের পেসার জেরম টেলর অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে নিজের প্রথম ৪০ বলে কোনো রান দেননি।
দ্বিতীয় দিন খেলা বন্ধ হওয়ার আগে লাকমল ১১ ওভারে ৯ মেডেন নিয়ে ৫ রান খরচায় তিন উইকেটের মালিক। দ্বিতীয় দিনের বাকি দুটি উইকেট নেন ৮ ওভারে ২৩ রান খরচ করা দাসুন সানাকা।