টিডিএন বাংলা ডেস্ক: ভিনরাজ্যে কাজে যাওয়া শ্রমিকদের সাতদিনের মধ্যে ঘরে ফেরানোর ব্যবস্থা করুন। বুধবার কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের নির্দেশনার পরেই এবার বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের কাছে এমনই দাবি জানালেন বিরোধী নেতৃবৃন্দ। কোনোরকমে বিলম্ব না করে সুস্থ শ্রমিকদের বাড়ি ফিরিয়ে নিয়ে আসার জন্য সরব হয়েছেন কংগ্রেস নেতা সাংসদ অধীররঞ্জন চৌধুরী, বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ থেকে বাম পরিষদীয় দলনেতা সুজন চক্রবর্তীরা।

কংগ্রেস নেতা সাংসদ অধীররঞ্জন চৌধুরী বুধবার বলেন, “মুর্শিদাবাদ-মালদা থেকে হাজার হাজার শ্রমিক ভিনরাজ্যে আটকে রয়েছেন। প্রতিদিন সকাল থেকে রাত পর্যন্ত কয়েকশ ফোন পাচ্ছি। ব্যক্তিগত উদ্যোগ নিয়ে তাদের অনেকের থাকা খাওয়ার ব্যবস্থা করেছি। স্থানীয় সরকারের সঙ্গে কথা বলে অনেকের রেশনেরও ব্যবস্থা করেছি। রাজ্য সরকারের উচিত কোনোরকম সময় নষ্ট না করে আজ রাত থেকেই এ ব্যাপারে বিভিন্ন রাজ্যের সঙ্গে যোগাযোগ শুরু করে দেওয়া”। বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষেরও দাবি, কেন্দ্র অনুমতি দিয়ে দিয়েছে। এবার ভিন রাজ্যে আটকে থাকা সুস্থ শ্রমিকদের সাত দিনের মধ্যে ফিরিয়ে আনুক রাজ্য। রাজ্যের যে শ্রমিকরা অন্য রাজ্যে পেটের তাগিদে যায় তাঁদের এবং তাঁদের পরিবারের আবেগ, অসহায়তাকে সম্মান দিক বাংলার সরকার। কেন্দ্র সব রকমের সাহায্য করতে তৈরি আছে”।মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সরকার অনেক কিছু নিয়েই রাজনীতি করেছে। এবার এটা নিয়ে যেন না করে। আমরা দাবি করছি, যত তাড়াতাড়ি সম্ভব শ্রমিকদের ফিরিয়ে আনা হোক”। পাশাপাশি বিধানসভায় বাম পরিষদীয় দলনেতা সুজন চক্রবর্তী বলেন, “আমাদের পার্টির পলিটব্যুরো তথা বাম ট্রেড ইউনিয়নগুলি কেন্দ্রীয় সরকারের কাছে দাবি জানিয়েছিল যে ভিনরাজ্যে কাজে যাওয়া শ্রমিকদের নিজেদের রাজ্যে ফেরানোর বন্দোবস্ত করতে হবে। রাজ্যকেও দিল্লির সঙ্গে সমন্বয় করে বিষয়টি কার্যকর করার দাবি জানিয়েছিলাম। আজ দিল্লির সরকার একটা নির্দেশিকা জারি করেছে। রাজ্যের উচিত দ্রুত নোডাল বডি গঠন করে বাংলার যে শ্রমিকরা দেশের বিভিন্ন রাজ্যে আটকে আছেন তাঁদের ফেরানোর বন্দোবস্ত করা। গাইডলাইনের শর্ত পূরণ করতে না পেরে যদি কোনও শ্রমিকের ফেরা আটকে যায় তাঁর ক্ষেত্রেও রাজ্যকে যত্নশীল হতে হবে যেন ওই রাজ্যে সঠিক ভাবে তিনি থাকতে পারেন।”