টিডিএন বাংলা ডেস্ক : সার্জিক্যাল স্ট্রাইক-২’তে কতজন জঙ্গি মারা গেলেন তার প্রমান চাইলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী প্রশ্ন তোলেন, নিয়ন্ত্রণ রেখা পেরিয়ে ভারতের এয়ার স্ট্রাইকে জঙ্গিঘাঁটি কি আদৌ বোমা দিয়ে ওড়ানো হয়েছে ?

নবান্ন থেকে বেরানোর মুখে বৃহস্পতিবার মুখ্যমন্ত্রী বলেন,’যুদ্ধ, যুদ্ধ করছে! মিডিয়া যুদ্ধ করছে। আজ পর্যন্ত বিরোধী দলগুলির সঙ্গে একটাও বৈঠক করেননি। পুলওয়ামার ঘটনার পর এয়ার স্ট্রাইকে কত জন এবং কারা মারা গিয়েছে, জানতে চাই। আসল ঘটনা কী?’

মঙ্গলবার ভোরে নিয়ন্ত্রণ রেখা পরিয়ে বালাকোটে জইশ-এ-তৈবার ঘাঁটিতে এয়ারস্ট্রাইক চালায় বায়ুসেনা। হাজার কেজি বোমা ফেলা হয় জঙ্গিঘাঁটিতে। প্রায় তিনশো জঙ্গিকে খতম করা হয়েছে বলে খবর।
কিন্তু তার প্রমান হিসাবে সেখানে কোন লাশ পাওয়া যায়নি। আসলে
নাম না করেই নরেন্দ্র মোদীকে নিশানা করলেন মুখ্যমন্ত্রী। মনে করিয়ে দেন, দেশমাতাকে ভালবাসি। জওয়ানদের রক্ত নিয়ে রাজনীতি করতে চাই না। ভোটের ফায়দা তোলার জন্য রাজনীতি হচ্ছে। এ দাবি অবশ্য কংগ্রেস, আমি আদমি পার্টি সহ অনন্য বিরোধীদেরও।
সেইসঙ্গে তিনি কেন্দ্রীয় সরকারকে দোষারোপ করে বলেন, গত পাঁচবছরে কিছুই করা হয়নি। তাঁর কথায়, ‘পাঠানকোট ও উরিতে হামলা হয়েছে। অথচ কোনও ব্যবস্থা নেওয়া হয়নি। বলে রাখি, উরির হামলার পর পাক অধিকৃত কাশ্মীরে সার্জিক্যাল স্ট্রাইক চালিয়েছিল বাহিনী।’