নিজস্ব সংবাদদাতা, টিডিএন বাংলা, বীরভূম: বৃদ্ধ দম্পতির রক্তাক্ত মৃতদেহ উদ্ধারের ঘটনায় চাঞ্চল্য ছড়ালো এলাকায়। ঘটনাটি ঘটেছে শুক্রবার বীরভূমের লাভপুর থানার কীর্নাহারে ব্রাহ্মণপাড়ায়। প্রাথমিক অনুমান থেতলে খুন করা হয়েছে ওই বয়স্ক দম্পতিকে। খুনের কারণ নিয়ে ধন্দে পুলিশ থেকে প্রতিবেশীরা। ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ।
পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে মৃত ব্যক্তিরা হলেন স্বপ্না চক্রবর্তী(৬৫) এবং পূর্ণেন্দু চক্রবর্তী(৭৫)। স্বপ্না দেবী অবসরপ্রাপ্ত স্কুল শিক্ষিকা এবং পূর্ণেন্দু বাবু রেলের অবসরপ্রাপ্ত কর্মী । বাড়িতে তারা দু’জন মিলে থাকতেন। ছেলে কর্মসূত্রে বাইরে থাকে। এদিন সকালে বাড়ির কাজের লোক এসে ডাকাডাকি করে। সাড়া না পেয়ে বিষয়টি প্রতিবেশী দের জানায় সেই কাজের লোক। বাড়ির মূল দরজা বন্ধ থাকায় মই দিয়ে পাঁচিল টপকে প্রতিবেশীরা ভিতরে ঢুকে দেখেন তাদের শোয়ার ঘরে দুটি আলাদা খাটে রক্তাক্ত অবস্থায় মৃতদেহ দুটি পড়ে আছে। ঘটনার খবর পেয়ে লাভপুর থানার পুলিশ তদন্তে আসে। বাড়ি থেকেই একটি হাতুড়ি ও একটি বাটখারা উদ্ধার হয়। ওই দুটি বস্তু দিয়ে আততায়ীরা থেতলে খুন করেছে। ছাদ ছাদ দিয়ে আততায়ীরা বাড়িতে ঢুকে ছিল। প্রথম অবস্থায় ডাকাতি করতে এসে খুন বলে মনে করা হলেও পরে দেখা যায় কোন মূল্যবান জিনিস এ হাত দেয়নি দুষ্কৃতীরা। কি কারণে খুন সেই নিয়ে ধন্দে পুলিশ থেকে আত্মীয় প্রতিবেশী পরিজনরা। ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ। এখনো পর্যন্ত কেউ গ্রেফতার হয়নি।