টিডিএন বাংলা, কলকাতা: রাজ্যের একটিমাত্র মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল যাকে সম্পূর্ণরূপে কোভিড হাসপাতাল করেছিল রাজ্য সরকার। যার জেরে গত দেড় মাস কলকাতা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে অন্যান্য সমস্ত চিকিৎসা পরিষেবা বন্ধ ছিল। বন্ধ রাখা হয়েছিল আউটডোর পরিষেবা। যার ফলে চরম সমস্যায় ছিলেন রোগীরা। বিশেষ করে হেমাটোলজি, ক্যান্সার, কার্ডিওলজি বিভাগের রোগীরা সবথেকে বেশি সমস্যায় পড়েছিলেন। তাদের কথা ভেবে হাসপাতালের আউটডোর পরিষেবার পাশাপাশি অন্যান্য বিভাগ খুলতে চলেছে। কিন্তু কোনো সংক্রমণ এড়িয়ে এই পরিষেবা কিভাবে শুরু করা যায় তা নিয়ে শনিবার বৈঠক হয় মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে। স্বাস্থ্য ভবনে আধিকারিকদের সঙ্গে সেই বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন রোগী কল্যাণ সমিতি ও হাসপাতালের বিভিন্ন বিভাগের প্রধান রা। স্বাস্থ্য ভবন এখনই আউটডোর পরিষেবা চালু করার ক্ষেত্রে সবুজ সংকেত দিলেও তা নিয়ে ভিন্ন মত প্রকাশ করেছেন চিকিৎসকদের একাংশ। তাদের মতে হাসপাতালে একি চৌহদ্দির মধ্যে করণা রোগীদের সঙ্গে আউটডোর পরিষেবা চালু করা সম্ভব নয়। তাই তড়িঘড়ি এই সিদ্ধান্ত না নেওয়ায় ভালো। আজকের বৈঠকে একাংশের পক্ষ থেকে দাবি করা হয়, আউটের পরিষেবা চালু করতে হলে তার আগে করনা রোগী ভর্তি থাকা গ্রীন বিল্ডিংস সুপারস্পেস্যালিটি ভবনে চারিদিকে পাচিল দিয়ে আলাদা করে দেয়া হোক। তো চিকিৎসকদের এ বিষয়ে ভিন্নমত থাকলেও, সোমবার থেকে কলকাতা মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালের আউটডোর পরিষেবা চালু হচ্ছে বলেই খবর।