টিডিএন বাংলা ডেস্ক : জমিয়তে উলামায়ে হিন্দের সভাপতি তথা রাজ্যের জনশিক্ষা প্রসার ও গ্ৰন্হাগার মন্ত্রী মাওলানা সিদ্দীকুল্লাহ চৌধুরী এক সমাবেশে বলেছেন, দেশজুড়ে অশান্তির দাবানল ছড়িয়ে দেবার অপচেষ্টা চলছে। হিন্দু মুসলমানে কোনো দাঙ্গা হবে না। কেউ কেউ দাঙ্গা বাঁধাতে খুবই তৎপর। আমাদের বার্তা একটাই সম্প্রীতি ও সদ্ভাব।

সম্প্রীতি রক্ষা প্রত্যেক ভারতবাসীর দায়িত্ব একথা উল্লেখ করে পশ্চিমবঙ্গের মন্ত্রী সিদ্দীকুল্লাহ চৌধুরী বলেন, সমগ্র দেশজুড়ে অশান্তির বাতাবরণ তৈরির চেষ্টা চলছে। একশ্রেণীর লোক হিন্দু- মুসলমানের মধ্যে বিভেদ সৃষ্টি করতে চাইছে। তাই কোন প্ররোচনার ফাঁদে পা না দিয়ে শান্তির বাতাবরণ সৃষ্টি করতে জমিয়ত কর্মীদের এগিয়ে আসার আহ্বান জানান তিনি।

মঙ্গলবার সদাইপুর ব্লক জমিয়তের আহ্বানে সাহাপুর জামাইপাড়া মোড়ে শান্তি, সম্প্রীতি ও সংহতি সমাবেশে মন্ত্রী সিদ্দীকুল্লাহ চৌধুরী এসব কথা বলেন। তিনি বলেন, দেশের স্বাধীনতা আন্দোলনে জমিয়তে উলামায়ে হিন্দের অবদান কেউ অস্বীকার করতে পারবে না। ১৯১৯ সালে মহাত্মা গান্ধীজীকে স্বাধীনতা আন্দোলনের জন্য এক লক্ষ্য টাকা দিয়েছিল জমিয়ত।

মসজিদ কবরস্থানের দলিল রেকর্ডসহ সমস্ত গুরুত্বপূর্ণ নথি যত্ন সহকারে রাখার কথা তিনি বলেন। তিনি আরও বলেন, রাজ্য রাবেতা বোর্ডের অধীনে প্রায় এক লক্ষ্য ছাত্র পড়াশোনা করে আর এসমস্ত প্রতিষ্ঠানকে সাহায্যের মাধ্যমে ধরে রেখেছেন মুসলিম সমাজ। এদিনের সভায় ব্লকের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে প্রায় ১০,০০০ জমিয়ত প্রেমিক মানুষ উপস্থিত হন।

গেরুয়া শিবিরের বিভিন্ন তৎপরতা সম্পর্কে সকলকে সতর্ক থাকতে এবং মানুষে মানুষে সম্প্রীতি ও সৌভ্রাতৃত্ব অক্ষুণ্ণ রাখার আহ্বান জানিয়ে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ভূয়সী প্রশংসা করে তিনি বলেন, মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সাফ বলে দিয়েছেন পশ্চিমবঙ্গে কোনোভাবে দাঙ্গা হতে দেবেন না। যে বা যারা দাঙ্গা করার চেষ্টা করবে তাদের বিরুদ্ধে কঠোর পুলিশি পদক্ষেপ নেওয়া হবে।

এছাড়াও সভায় প্রাসঙ্গিক বক্তব্য রাখেন রাজ্য জমিয়তের সহ সভাপতি মাওলানা আবুল কাসেম সাহেব, মাওলানা আনিসুর রহমান, মাওলানা নজরুল হক, মুফতী ফজলুল হক, সমাজসেবী মহিমউদ্দিন ও মাওলানা ইজাজুল হকসহ বিশিষ্টজনেরা।