নিজস্ব সংবাদদাতা, টিডিএন বাংলা, কলকাতা: রাজ্যসভায় কৃষি বিল পাশ হওয়ার পর কেন্দ্রকে কৃষক বিরোধী সরকার বলে আখ্যায়িত করে তোপ দাগলেন ওয়েলফেয়ার পার্টির রাজ্য মনসা সেন। আজ এক অনলাইন সাংবাদিক সম্মেলনে তিনি জানান, কেন্দ্র সরকারের কৃষক বিরোধী নীতির কারণে আমাদের দেশের কৃষকেরা আজ ক্ষুব্ধ। ২০১৪ সালে প্রধানমন্ত্রী হিসাবে নরেন্দ্র মোদী ক্ষমতায় আসার পরপরই দেশে কৃষকের পরিস্হিতি আরও খারাপ হতে শুরু করে। ২০১৪ থেকে ২০১৯ সালের মধ্যে হঠাৎ করে কৃষকের আত্মহত্যার ঘটনা বেড়েছে এবং বর্তমানে আত্মহত্যার পরিসংখ্যান প্রায় দ্বিগুণ। বর্তমান পরিস্থিতি হলো প্রতি বছর কতজন কৃষক আত্মহত্যা করছেন তা বলা বন্ধ করে দিয়েছে কেন্দ্রের বিজেপি সরকার । সরকার একটি ভূমি অধিগ্রহণ বিল এনেছে, যা দরিদ্র কৃষক এবং আদিবাসীদের জমি হারানোর পথ প্রশস্ত করবে। কেন্দ্রীয় সরকার সংসদে পাশ করানো নতুন বিলের মাধ্যমে দেশের কৃষকদের পুরোপুরি ধ্বংস করতে প্রস্তুত। যখন কৃষক বন্ধুরা আন্দোলন করেন, মোদীজী দেশের সীমান্তের সংঘর্ষের কথা বলে তা এড়িয়ে যান, লাঠিপেটা করা হয় কৃষকদের ,মেরেও ফেলা হয়। কৃষক বিরোধী কালা বিলে, ফসলের সর্বনিম্ন মূল্য নির্ধারন বাতিল করা হয়েছে। মোদীর বিলের আওতায় দরিদ্র কৃষকরা দেশের বড় শিল্পপতিদের সাথে সরাসরি প্রতিযোগিতা করবেন, এটা ভাবা যায়? শিল্পপতিরা প্রথমে দেশের কৃষকদের জমি চুক্তিতে নেবেন এবং পরে কৃষক তার পছন্দের ফসল রোপণ করতে পারবেন না এবং তার নিজের জমিতে তার কোনও অধিকার থাকবে না। মোদিজী ক্ষমতায় আসার পর থেকে দরিদ্র কৃষক, শ্রমজীবী, যুবসমাজের কথা চিন্তা না করে তাদের কিছু পেটোয়া শিল্পপতিবন্ধুর স্বার্থ সিদ্ধির জন্য একের পর এক সিদ্ধান্ত নিচ্ছেন বলেও অভিযোগ করেন।

এদিন ওয়েলফেয়ার পার্টির আর এক রাজ্য নেতা মহঃ জালাল উদ্দিন আহমেদ নরেন্দ্র মোদী সরকারের কৃষক বিরোধী নীতির বিরুদ্ধে তীব্র প্রতিবাদ জানান।
তিনি কৃষকদের অধিকারের স্বার্থে সকলের কাছে সোশ্যাল মিডিয়াতে দেশের কৃষকদের আওয়াজ তুলতে কালা কৃষি বিলের বিরুদ্ধে সোচ্চার হতে আহবান জানান।