HighlightNewsদেশ

ত্রিপুরায় সার্বিক উন্নয়ন স্তব্ধ, স্বাস্থ্য-শিক্ষা-কর্মসংস্থান দিতে ব্যর্থ, বিজেপি সরকারকে তীব্র আক্রমণ বিরোধী দলনেতার

নিজস্ব সংবাদ, টিডিএন বাংলা: ত্রিপুরার সার্বিক উন্নয়ন নিয়ে রাজ্যের বিজেপি সরকারকে কড়া ভাষায় আক্রমণ করলেন বিরোধী দলনেতা অনিমেষ দেববর্মার। রাজ্যের বিরোধী দলনেতা সাংবাদিক বৈঠক করে রাজ্যের সার্বিক উন্নয়ন নিয়ে প্রশ্ন তোলেন। স্বাস্থ্য থেকে শিক্ষা সর্বক্ষেত্রেই বর্তমান সরকার ব্যর্থ বলে অভিযোগ বিরোধী দলনেতা অনিমেষ দেববর্মার। কর্মসংস্থানেও এই সরকার ব্যর্থ বলে অভিযোগ তাঁর।

বিজেপি শাসিত ত্রিপুরায় সার্বিক উন্নয়ন নিয়ে ক্ষুব্ধ রাজ্যের সাধারণ মানুষ। বিশেষ করে রাজ্যের তপশিলি জাতি উপজাতিদের উন্নয়নে বর্তমান সরকার কোন কাজ করেনি বলে অভিযোগ। ত্রিপুরার পার্বত্য অঞ্চলে বসবাসকারী তপশিলি এলাকার সার্বিক উন্নয়নের প্রতিশ্রুতি দেওয়া হলেও বাস্তবে তার প্রতিফলন ঘটেনি। শুধু এলাকার উন্নয়ন নয়, কর্মসংস্থানের ক্ষেত্রেও ব্যর্থ ডাক্তার মানিক সাহার সরকার। সরাসরি অভিযোগ করেছেন ত্রিপুরা বিধানসভার বিরোধী দলনেতা অনিমেষ দেববর্মা।

এই প্রসঙ্গে তিনি বলেন, “রাজ্যের একাধিক  দফতরে শূন্য পদ রয়েছে। তা পূরণ করা হচ্ছে না। শিক্ষাক্ষেত্রে নিয়োগ নেই। রাজ্যের শিক্ষার্থীদের জন্য বিশেষ কোনো ব্যবস্থা নেই সরকারের। শিল্পক্ষেত্রে বন্ধ্যা দশা। শিক্ষা স্বাস্থ্য থেকে শুরু করে রাজ্যের সার্বিক উন্নয়ন সব ক্ষেত্রেই বিজেপি শাসিত রাজ্য সরকার সম্পূর্ণ ব্যর্থ  হয়েছে।”
সাংবাদিক বৈঠকে বিরোধী দলনেতা বলেন, “ত্রিপুরার উপজাতি মানুষদের উন্নয়ন কতটা হয়েছে, তা ত্রিপুরার উপজাতি এলাকাগুলিতে গেলেই বোঝা যায়। ত্রিপুরার উপজাতি এলাকাগুলিতে জল নেই, বিদ্যুৎ নেই, প্রয়োজনীয় রাস্তাঘাট নেই। ৩৪ থেকে ৩৫ টি দপ্তরের দায়িত্ব রয়েছে ত্রিপুরার মুখ্যমন্ত্রীর হাতে। অথচ উন্নয়নের কোনো নাম নেই। ত্রিপুরা আগরতলার প্রধান রেফারেল হাসপাতাল জিবিপি হাসপাতালের স্বাস্থ্য পরিষেবা বেহাল হয়ে রয়েছে।”

Related Articles

Back to top button
error: