নিজস্ব সংবাদদাতা, টিডিএন বাংলা: দৈনন্দিন জীবনে আমাদের মোবাইলের ব্যবহার বেড়েছে কয়েক শত গুণ। তার সঙ্গেই পাল্লা দিয়ে বেড়েছে মোবাইলের স্ক্রিনে দীর্ঘ সময় চোখ আটকে থাকার প্রবণতা। প্রতিদিনই স্মার্ট ফোন আর এন্ড্রয়েড ফোনের স্ক্রিনে কাজ করতে করতে অথবা মনমুগ্ধকর ভিডিও দেখতে দেখতে পেড়িয়ে যাচ্ছে ঘন্টার পর ঘন্টা। কিন্তু নিঃশব্দে সম্পূর্ণ নিরীহ এই মোবাইলের স্ক্রিন এবং স্ক্রিন থেকে বিচ্ছুরিত রশ্মি আমাদের চোখের উপর ব্যাপক প্রভাব ফেলছে।

অল্পবিস্তর মোবাইলের ব্যবহার অথবা থেমে থেমে মোবাইলের স্ক্রিনে তাকিয়ে কাজ করলে, চোখে এর কুপ্রভাব খুব একটা পড়ে না। তবে যারা দীর্ঘ সময় ধরে মোবাইলের স্ক্রিনে চোখ রাখেন তাদের জন্য বেশ কিছু ভয়ঙ্কর শারীরিক সমস্যার কথা ডাক্তাররা উল্লেখ করেছেন ‌। দীর্ঘ সময় ধরে মোবাইল ব্যবহার করলে চোখের কোণের জল শুকিয়ে যাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। চোখ জ্বালা করা, বারবার চোখ কচলানো, চোখ দিয়ে জল পড়া এগুলো খুবই সাধারণ উপসর্গ। অত্যাধিক মোবাইল স্ক্রিন ব্যবহারের কারণে শরীরে ঝিমুনিও আসতে পারে।

ম্যাক্সি ভিশন সুপারস্পেস্যালিটি চক্ষু হাসপাতালের প্রধান সর্জেন ডাক্তার কাসু প্রসাদ রেড্ডি জানান, একটানা লম্বা ৩০ মিনিট মোবাইলের স্ক্রিনে চোখ রাখা উচিত নয়। যদি একান্তই প্রয়োজন হয় তবে ২০ মিনিটের মধ্যে স্বল্প বিরতি নেওয়া দরকার। মোবাইলের স্ক্রিন থেকে স্বল্প দৈর্ঘ্যের নীল তরঙ্গ বের হয় যা চোখের জন্য সবচেয়ে বিপজ্জনক। ডাক্তার রেড্ডি আরোও জানান, মোবাইল স্ক্রিনের নীল তরঙ্গ মানব শরীরে মেলাটোনিন হরমোনের ক্ষরণ কমিয়ে দেয় ফলে মানুষ নিদ্রাহীনতায় ভোগে। আর এটা খুব স্বাভাবিক মানুষের শরীরে নিদ্রা কমে গেলে মানবদেহে বিভিন্ন রোগ বাসা বাঁধতে শুরু করে।

ডাক্তার রেড্ডি, মোবাইলের স্ক্রিন থেকে বিচ্ছুরিত রশ্মির ক্ষতিকর দিকগুলো থেকে বাঁচতে বেশ কিছু উপায় বাতলে দিয়েছেন। তিনি জানান মোবাইল ব্যবহার করার সময় সেটির সব সময় এক থেকে দেড় ফুট দূরত্ব বজায় রেখে ব্যবহার করা উচিত। অন্ধকার ঘরে মোবাইল ব্যবহার না করে উজ্জ্বল ঘর অথবা দিনের আলোয় মোবাইল ব্যবহার করা সর্বোত্তম। অন্ধকার ঘরে মোবাইল ব্যাবহার করা সবচেয়ে ভয়ঙ্কর এতে স্ক্রিনের ক্ষতিকর রশ্মি গুলো সরাসরি চোখে ব্যাঘাত সৃষ্টি করে। ফলে চিরতর ভাবে অন্ধ হয়ে যাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। তিনি মনে করেন মোবাইল ব্যবহার করার সবচেয়ে সঠিক সময় সকালবেলা এবং বিকেল বেলা। ডাক্তার রেড্ডি জানান, মোবাইল এমন ঘরে ব্যবহার করা উচিত যে ঘরে পর্যাপ্ত আলো এবং উজ্জ্বলতা রয়েছে। এর বিপরীতে অন্ধকার ঘরে মোবাইল ব্যবহার করা সবচেয়ে ঝুঁকিপূর্ণ। অন্ধকার ঘরে মোবাইল ব্যবহার করার ফলে চোখসহ মস্তিষ্কেরও সমস্যা দেখা দেয়। এছাড়াও মোবাইল ব্যবহার করার সময় বারবার চোখের পাতা ফেলার কথাও তিনি বলেন। এতে করে মোবাইলের রিস্টার্ট এর মতো চোখের বিভিন্ন কসিকা গুলো রিস্টার্ট হয়ে যায়। ফলে আপনার চোখ সতেজ থাকে। এছাড়া মোবাইলের স্ক্রিনের ক্ষতিকর রশ্মি থেকে বাঁচতে চোখে সাদা চশমা ব্যবহার করা যেতে পারে বলে তিনি উল্লেখ করেন।