দেশ

বিহারের মানুষ সংশয়ের মধ্যে থাকেননা, আবারো একবার এনডিএর সরকার গঠিত হবে; সাসারাম থেকে দাবি করলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি

টিডিএন বাংলা ডেস্ক: আজ বিহারের বিধানসভা নির্বাচনে এনডিএর জয় সুনিশ্চিত করতে সাসারামে আয়োজিত প্রথম র‍্যালিতে অংশগ্রহণ করে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির দাবি, যতগুলি সার্ভে রিপোর্ট আসছে সেই অনুযায়ী বিহারে আবারো একবার এনডিএর সরকার গঠিত হবে। এদিন ভাষণের শুরুতে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির ভোজপুরি ভাষায় বিহারের মানুষের উদ্দেশ্যে নিজের বার্তা দেওয়া শুরু করেন। প্রয়াত রামবিলাস পাসওয়ানকে শ্রদ্ধা জানিয়ে সরাসরি জোট সঙ্গী এনডিএর হয়ে বিহারের মানুষের কাছ থেকে সমর্থন আহ্বান করেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি।

তিনি বলেন,”বিহারের সুপুত্র গালওয়ান ঘাঁটিতে তিরঙ্গা জন্য শহীদ হয়ে গেছেন কিন্তু ভারত মায়ের মাথা নত হতে দেননি। পুলবামা হামলাতেও বিহারের জওয়ান শহীদ হয়েছেন, আমি ওনাদের পরিবারের চরনে আমার মাথা নত করে ওনাদের শ্রদ্ধাঞ্জলি জানাচ্ছি।”

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী বলেন,”আজ রোহতাসের সঙ্গে সঙ্গেই আশেপাশের অন্যান্য জেলার সঙ্গীরাও এখানে এসেছেন। ভার্চুয়াল মাধ্যমেও অনেক সাথী এবং এনডিএর প্রার্থীরাও আমাদের সাথে যুক্ত হয়েছেন। আমি আপনাদের সবাইকে অভিনন্দন জানাই।”তিনি আরো বলেন,”সাথীরা সম্প্রতি বিহার তার দুই সুপুত্রকে হারিয়েছে, যারা কয়েক দশক ধরে এখানে মানুষের সেবা করেছেন। আমার প্রিয় বন্ধু এবং গরিবদের, দলিতদের জন্য নিজেদের জীবন সমর্পিত করা এবং শেষ সময় পর্যন্ত আমার সাথে থাকা রামবিলাস পাসওয়ানজিকে আমি শ্রদ্ধাঞ্জলি অর্পণ করি।”

মোদী আরো বলেন, “বাবু রঘুবংশ প্রসাদ সিংহ জিও গরীবদের উন্নয়নের জন্য ধারাবাহিকভাবে কাজ করেছিলেন, তিনিও এখন আমাদের মধ্যে নেই। আমি তাঁর প্রতি শ্রদ্ধা জানাই।” তিনি আরো বলেন, “আমি বিহারের জনগণকে এত বড় বিপর্যয়ের বিরুদ্ধে দৃঢ় লড়াইয়ের জন্য অভিনন্দন জানাতে চাই।করোনাকে এড়ানোর জন্য যেভাবে দ্রুত সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছিল, বিহারের লোকেরা যেভাবে কাজ করেছিলেন, নীতীশজির লোকেরা, এনডিএ সরকার কাজ করেছে, তার ফলাফল আজ দেখতে পাওয়া যাচ্ছে।”

প্রধানমন্ত্রী আরও বলেন, “বিশ্বের বড় বড় ধনী দেশগুলির অবস্থা কারও কাছ থেকে গোপন নয়। বিহারে যদি দ্রুত কাজ না করা হত, তবে এই মহামারী না জানি আরও কত সহচর, আমাদের পরিবারের সদস্যদের মেরে ফেলত, এত বড় শোকের পরিস্থিতি সৃষ্টি হতো যা কেউ কল্পনাও করতে পারেন না।”

Related Articles

Back to top button
error: