দেশ

হর্নের কর্কশ শব্দ থেকে রেহাই দেওয়ার ভাবনা মন্ত্রীর

টিডিএন বাংলা ডেস্ক : রাস্তায় বেরোলেই যানবাহনের কানফাটানো হর্ন। একটা সময় ঝালাপালা ধরে যান শ্রবণেন্দ্রিয়! এবার হর্ন বাজালে আর বিরক্ত হবেন না। বরং খুশি হবেন। কখনও আবার হর্ন বাজানো হচ্ছে না কেন, তাও মনে প্রশ্ন জাগবে। কিন্তু কেন?কারণ খুব শীঘ্রই গাড়ির হর্নের কর্কশ শব্দের বদলে বাজতে পারে সেতার, বীণা, বাঁশি কিংবা জলতরঙ্গের সুমধুর সুর। এমনই পরিকল্পনার কথা শোনালেন কেন্দ্রীয় সড়ক পরিবহণ ও হাইওয়ে মন্ত্রী নীতিন গডকড়ি।

নাসিকে এক হাইওয়েব উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে যান মন্ত্রী। সেখানে সংবাদমাধ্যমকে এই কথা জানিয়েছেন তিনি। শুধু যানবাহনেই নয়। অ্যাম্বুল্যান্স, পুলিশের সাইরেন, হুটার ইত্যাদিতেও বাজবে বাদ্যযন্ত্র। মন্ত্রীর কথায়, ‘কনভয় যাওয়া সময়ে কর্কশ শব্দ খুবই বিরক্তিকর। তার বদলে সুরেলা কিছু বাজলে শব্দদূষণ কম হবে।’

যানবাহনের কর্কশ শব্দ সত্যিই উদ্বেগের বিষয়। কেন্দ্রীয় দূষণ নিয়ন্ত্রণ বোর্ড (সিপিসিবি) বেশ কয়েকটি শহরের গুরুত্বপূর্ণ ট্রাফিক জংশনে ডেসিবেল স্তর পর্যবেক্ষণ করেছে। চেন্নাই, দিল্লি, কলকাতা, মুম্বই এবং হায়দরাবাদের মতো শহরগুলিতে দেশের সবচেয়ে শব্দ দূষণে আক্রান্ত হিসাবে চিহ্নিত করা হয়েছে।

Related Articles

Back to top button
error: