তিউনিসিয়ার পর জার্মানিতে কোভিড পরিস্থিতি মোকাবিলায় ব্যর্থতার অভিযোগে বিক্ষোভ মিছিল

টিডিএন বাংলা ডেস্কঃ জার্মানির বার্লিন শহরে কোভিড পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে ব্যর্থতার অভিযোগে সরকারের বিরুদ্ধে কয়েক হাজার বিক্ষোভকারী বিক্ষোভ প্রদর্শন করলেন। বিশ্বের প্রতিটি দেশে করোনা পরিস্থিতিতে শিক্ষা, স্বাস্থ্য, অর্থনীতি ব্যাপকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। কমবেশি অধিকাংশ দেশেই করোনার ফলে অগনিত মানুষের মৃত্যু হয়েছে। কোনো কোনো দেশে করোনা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে ব‍্যর্থ হওয়ায় সরকারের বিরুদ্ধে বিক্ষোভ দেখানো হয়েছে। জার্মানিতে গতকাল সোমবার রাজধানী বার্লিনে প্রথমে কয়েকশো মানুষ জড়ো হয়ে করোনা পরিস্থিতি মোকাবিলায় ব্যর্থতার অভিযোগে সরকারের বিরুদ্ধে বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করে। কিন্তু অল্প কিছুক্ষণের মধ্যেই ধীরে ধীরে সে সংখ্যা গিয়ে পৌঁছায় কয়েক হাজারে। এ অবস্থায় পুলিশ ও নিরাপত্তা বাহিনীরা তাদেরকে আটকাতে চেষ্টা করলে বিক্ষোভকারীদের সঙ্গে পুলিশ ও নিরাপত্তা রক্ষীদের ধস্তাধস্তি শুরু হয়। উল্লেখ্য যে, ইতিপূর্বেই জার্মানির সুপ্রিম কোর্ট করোনা পরিস্থিতির কারণে যেকোনো বিক্ষোভ মিছিল নিষিদ্ধ ঘোষণা করেছে। প্রশাসনের নিষেধাজ্ঞা সত্ত্বেও বিক্ষোভকারীরা বিক্ষোভ প্রদর্শন করতে শুরু করলে পুলিশ তাদের বাঁধা দেয়। শুরু হয় জনতা বনাম পুলিশ ও নিরাপত্তা বাহিনীর সংঘর্ষ। পুলিশের তরফে অভিযোগ করা হয়, “বিক্ষোভকারীরা ব‍্যারিকেট ভেঙে মিছিল এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে,নিরাপত্তা কর্মীদের ওপর হামলা চালানো হয়, যানবাহন চলাচলে বাঁধা দেয় এবং পুলিশের উপর হামলা চালায়।” এরফলে আইনশৃঙ্খলা নিয়ন্ত্রণের জন‍্য প্রায় ৬০০ বিক্ষোভকারীকে গ্রেফতার করা হয়েছে। বলে জানিয়েছে প্রশাসন। কিছুদিন আগেই তিউনিসিয়াতেও করোনা পরিস্থিতি মোকাবিলায় ব্যর্থতার অভিযোগে রাজধানীতে বিক্ষোভ শুরু হয়। এর পরিপ্রেক্ষিতে প্রেসিডেন্ট সাঈদ তিউনিসিয়ার প্রধানমন্ত্রী, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আইনমন্ত্রী সহ একাধিক মন্ত্রীকে বরখাস্ত করে, সংসদ ভেঙে দেয় এবং এক মাসের জন্য রাত্রিকালীন কারফিউ জারি করে। ফলে দেশটিতে রাজনৈতিক উত্তেজনা বিরাজ করছে। এর মধ্যে জার্মানিতেও সরকারবিরোধী বিক্ষোভ শুরু হওয়ায় জার্মানিতেও রাজনৈতিক পরিস্থিতি উত্তপ্ত হওয়ার আশঙ্কা করছেন বিশেষজ্ঞগণ।