ব্রিটিশ ডেস্ট্রয়ার পাঠানোর পর থেকে ক্রমশ বাড়ছে রাশিয়া ও ন্যাটো উত্তেজনা

প্রতীকী ছবি

 

টিডিএন বাংলা ডেস্ক: ২৩জুন ব্রিটিশ ডেস্ট্রয়ার ‘ডিফেন্ডার’ রাশিয়ার কৃষ্ণসাগরের জলসীমা অতিক্রম করে প্রায় তিন কিলোমিটার অভ্যন্তরে প্রবেশ করে বলে অভিযোগ। যদিও ইংল্যান্ড রাশিয়ার জলসীমা অতিক্রমের অভিযোগ অস্বীকার করেছে। এর পরিপ্রেক্ষিতে রাশিয়ার সঙ্গে ন্যাটো জোটের উত্তেজনা ক্রমশ বাড়ছে। গতকাল রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট পুতিন এক সাক্ষাৎকারে বলেন, “রাশিয়া ব্রিটিশ ডেস্ট্রয়ার ডুবিয়ে দিলেও কোনো যুদ্ধ পরিস্থিতি তৈরী হতো না। কারণ ন্যাটো জোট ভালো করেই জানে তারা এমন কোন যুদ্ধ করার মত জায়গাতে নেই।” উল্লেখ্য ২৩জুন একটি ব্রিটিশ ডেস্ট্রয়ার রাশিয়ার জলসীমা অতিক্রম করে বলে অভিযোগ। একই সময়ে একটি মার্কিন ড্রোন গ্ৰিস থেকে উড্ডয়ন করে। তিনি বলেন, “ব্রিটিশ ডেস্ট্রয়ার ও মার্কিন ড্রোন দেখতে চাইছিল এই পরিপ্রেক্ষিতে রাশিয়ার জবাব কেমন হয়। তারা সেটা বুঝতেও পেরেছে। এর আগে পুতিন বলেন ইংল্যান্ড ও ন্যাটো জোট এর মাধ্যমে নিজেদের ভাগ্য পরীক্ষা করতে চাইছে। একই সঙ্গে কৃষ্ণসাগরে আমেরিকা ও ন্যাটো জোটের গতিবিধি বৃদ্ধি পাওয়ায় রাশিয়া তাদেরকে সতর্ক করে। অন্যদিকে ন্যাটো জোট এ ব্যাপারে কঠোর প্রতিক্রিয়া জানিয়েছে। তারা জানিয়েছে, ক্রিমিয়াকে তারা ইউক্রেনের অংশে বলেই মনে করে। তাই ক্রিমিয়ার জলসীমায় প্রবেশকে তারা রাশিয়ার জলসীমা অতিক্রম বলে মনে করে না। একই সঙ্গে তারা জানিয়েছে রাশিয়ার আপত্তি সত্ত্বেও কৃষ্ণসাগরের এই অঞ্চলে ন্যাটো জোটের গতিবিধি অপরিবর্তিত থাকবে।