ঘূর্ণিঝড় তকতের প্রভাবে ভেসে গিয়েছে অমিতাভ বচ্চনের দপ্তর জনক, শ্রুতি হাসানের বাড়ির জানালা ভাঙ্গার মুখে

Amitabh Bachchan in his blog shared how Cyclone Tauktae affected his property. (Amitabh Bachchan/Instagram)

টিডিএন বাংলা ডেস্ক: সোমবার রাতে ঘূর্ণিঝড়ের তকতে আছড়ে পরে মুম্বইয়ে। ঝড়ের ঝাপটায় ভেসে গিয়েছে অমিতাভ বচ্চনের দপ্তর “জনক”। উড়ে গিয়েছে ছাদ। শ্রুতি হাসানের বাড়ির জানলা ভেঙে পড়ার উপক্রম হয়েছিল ঝড়ের তাণ্ডবে। মঙ্গলবার সকাল থেকে ধীরে ধীরে ঝড়ের দাপট কমতে নেট মাধ্যমে নিজেদের অভিজ্ঞতার কথা জানালেন বলিউডের তারকারা। সকাল থেকেই নেট মাধ্যম ভরে যায় ঝড়ের পরবর্তী ধ্বংসাবশেষের ছবি এবং ভিডিওতে।

প্রসঙ্গত, আরব সাগরে ঘূর্ণিঝড় তকতের প্রভাবে ব্যাপক ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে কেরল, গুজরাট, মহারাষ্ট্রের রাজ্যগুলি। ঝড়ের তাণ্ডবের হাত থেকে মুম্বইয়ের আমজনতা তো বটেই রেহাই পাননি তারকারাও। কেউ লিখে, আবার কেউ শুধুমাত্র ভিডিও এবং ছবি পোস্ট করে জানিয়েছেন গতকাল রাতের ভয়াবহ অভিজ্ঞতার কথা।

অমিতাভ বচ্চন লিখেছেন,”ঝড়ের মাঝে এক বার ভূতুড়ে নিস্তব্ধতা তৈরি হয়েছিল। সারা দিন প্রচণ্ড ঝড়, বৃষ্টি, গাছ পড়ে যাওয়া, চার দিকে জল, জনক-এ জল ভর্তি হয়ে যাওয়া— ভয়াবহ! আমার কয়েক জন কর্মী জলে ভিজে গিয়েছিলেন। কারণ তাঁরা যেখানে আশ্রিত ছিলেন, সেই ছাদ উড়ে গিয়েছিল। বৃষ্টিতে ভিজে ভিজে তাঁরা যে ভাবে কাজ করেছেন, তা অনবদ্য। আমার আলমারি থেকে তাঁদের পোশাক দিয়েছি বদলানোর জন্য।”

অন্যদিকে শ্রুতি হাসান ইনস্টাগ্রামে পোস্ট করে বলেছেন, ঝড়ের তাণ্ডবে তার বাড়ির জানালা ভেঙে পড়ার উপক্রম হয়েছিল। তিনি বলেন, “ভয়াবহ ঝড়ের মুখে পড়েছিলাম আমরা কাল। গত বছর যখন একা ছিলাম, তখন এ রকম ঝড় হলে খুব ভয়ে পেয়ে যেতাম।”

সোমবার রাতে ঘূর্ণিঝড়ের তকতে আছড়ে পরে মুম্বইয়ে। ঝড়ের ঝাপটায় ভেসে গিয়েছে অমিতাভ বচ্চনের দপ্তর “জনক”। উড়ে গিয়েছে ছাদ। শ্রুতি হাসানের বাড়ির জানলা ভেঙে পড়ার উপক্রম হয়েছিল ঝড়ের তাণ্ডবে। মঙ্গলবার সকাল থেকে ধীরে ধীরে ঝড়ের দাপট কমতে নেট মাধ্যমে নিজেদের অভিজ্ঞতার কথা জানালেন বলিউডের তারকারা। সকাল থেকেই নেট মাধ্যম ভরে যায় ঝড়ের পরবর্তী ধ্বংসাবশেষের ছবি এবং ভিডিওতে।

প্রসঙ্গত, আরব সাগরে ঘূর্ণিঝড় তকতের প্রভাবে ব্যাপক ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে কেরল, গুজরাট, মহারাষ্ট্রের রাজ্যগুলি। ঝড়ের তাণ্ডবের হাত থেকে মুম্বইয়ের আমজনতা তো বটেই রেহাই পাননি তারকারাও। কেউ লিখে, আবার কেউ শুধুমাত্র ভিডিও এবং ছবি পোস্ট করে জানিয়েছেন গতকাল রাতের ভয়াবহ অভিজ্ঞতার কথা।

অমিতাভ বচ্চন লিখেছেন,”ঝড়ের মাঝে এক বার ভূতুড়ে নিস্তব্ধতা তৈরি হয়েছিল। সারা দিন প্রচণ্ড ঝড়, বৃষ্টি, গাছ পড়ে যাওয়া, চার দিকে জল, জনক-এ জল ভর্তি হয়ে যাওয়া— ভয়াবহ! আমার কয়েক জন কর্মী জলে ভিজে গিয়েছিলেন। কারণ তাঁরা যেখানে আশ্রিত ছিলেন, সেই ছাদ উড়ে গিয়েছিল। বৃষ্টিতে ভিজে ভিজে তাঁরা যে ভাবে কাজ করেছেন, তা অনবদ্য। আমার আলমারি থেকে তাঁদের পোশাক দিয়েছি বদলানোর জন্য।”

অন্যদিকে শ্রুতি হাসান ইনস্টাগ্রামে পোস্ট করে বলেছেন, ঝড়ের তাণ্ডবে তার বাড়ির জানালা ভেঙে পড়ার উপক্রম হয়েছিল। তিনি বলেন, “ভয়াবহ ঝড়ের মুখে পড়েছিলাম আমরা কাল। গত বছর যখন একা ছিলাম, তখন এ রকম ঝড় হলে খুব ভয়ে পেয়ে যেতাম।”