বীরভূমের ময়ূরাক্ষী নদীর জলে ডুবে মৃত্যু একই পরিবারের তিন কিশোরের

কৌশিক সালুই, টিডিএন বাংলা, বীরভূম: নদীর জলে স্নান করতে গিয়ে তলিয়ে মৃত্যু হল একই পরিবারের তিন কিশোরের। মর্মান্তিক ঘটনাটি ঘটেছে সোমবার বীরভূমের মহম্মদ বাজার থানার ময়ূরাক্ষী নদীর আঙ্গারগড়িয়ার বড়াম ঘাটে। ঘটনার জেরে এলাকায় শোকের ছায়া। মৃতদেহ সিউড়ি সুপার স্পেশালিটি হাসপাতালে ময়নাতদন্ত করা হয় এবং পরিবারের হাতে তুলে দেওয়া হয়।
পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে মৃতেরা হলেন রাহুল শর্মা বয়স ১৭ বছর, বাড়ি আঙ্গারগড়িয়া গ্রামে এবং তার দুই নিকট আত্মীয় রোহন শর্মা এবং রোহিত শর্মা। দুজনের আনুমানিক বয়স ১৫ থেকে ১৬ বছর। বাড়ি মল্লারপুরে। রাহুলের পরিবার তাদের নিকট আত্মীয় এবং তারা বেড়াতে এসেছিল এখানে। রাহুল ভারতীয় সেনাবাহিনীতে চাকরি পেয়েছিল সম্প্রতি। এদিন দুপুরে তাদের মৃতদেহ নদীর জল থেকে উদ্ধার করা হয়। তারা তিনজন মিলে ময়ুরাক্ষী নদীর জলে স্নান করতে গিয়েছিল। প্রাথমিকভাবে অনুমান কোন একজন নদীর জলে তলিয়ে গেলে তাকে বাঁচাতে গিয়ে বাকি দুইজন ডুবে যায়। স্থানীয় মানুষজন ও মহম্মদ বাজার থানার পুলিশ তাদেরকে উদ্ধার করে প্রথমে প্যাটেল নগর ব্লক প্রাথমিক স্বাস্থ্যকেন্দ্রে নিয়ে যায় এবং চিকিৎসকরা তাদের তিনজনকে মৃত বলে ঘোষণা করে। মৃত কিশোরদের নিকট আত্মীয় রাকেশ শর্মা বলেন,” ওই তিনজন মিলে নদীর জলে স্নান করতে গিয়ে তলিয়ে যায় এবং পুলিশ ও স্থানীয় মানুষজন তাদেরকে উদ্ধার করে মৃত অবস্থায়”।