বারাসাত কোর্টের একটি ভবনের নীচে সন্ধান মিলল প্রাচীন সুড়ঙ্গের!

টিডিএন বাংলা ডেস্ক : আমরা গল্পের বই-এর পাতায় বা ইতিহাসে পাতায় পড়েছি মাটির নীচের গুপ্ত সুড়ঙ্গের কথা। যেখান দিয়ে গোপনে যাতায়াত করতেন রাজা বাদশারা। বা স্বাধিনতা যুদ্ধে সুড়ঙ্গ পথে স্বধিনতা সংগ্রামীদের হামলার ইতিহাসও আছে অনেক। তবে এবার গল্প বা ইতিহাসের পাতায় নয় জলজ্যান্ত একটা বৃহৎ প্রাচীন সুড়ঙ্গের সন্ধান মিলল উত্তর ২৪ পরগণার জেলার সদর শহর বারাসাতে। ভূগর্ভস্থ এই সুড়ঙ্গের সন্ধান মিলতেই চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পড়েছে শহর জুড়ে। শহরের মাঝে এমন একটা সুড়ঙ্গের খোঁজ পেয়ে চোখ কপালে স্থানীয় প্রশাসনেরও।

জানা গিয়েছে, বারাসাতের কে কে মিত্র রোডে বারাসাত কোর্টের তত্ত্বাবধানে থাকা একটি ভবন দীর্ঘদিন ধরেই বেহাল অবস্থায় পড়ে ছিল। কিছুদিন পূর্বেই স্বাস্থ্য দফতর বাড়িটি ভাঙার কাজ শুরু করে। কিন্তু বাড়িটি যেহেতু বারাসাত কোর্টের তত্ত্বাবধানে আছে তাই স্বাস্থ্য দফতরের বিরুদ্ধে বেআইনিভাবে বাড়ি ভাঙার অভিযোগে ওঠে। এরপরই আদালতের হস্তক্ষেপে সেই ভাঙার কাজ বন্ধ হয়ে যায়। হঠাৎই এদিন স্থানীয় বাসিন্দারা লক্ষ করেন বাড়িটির ভাঙা অংশে সুড়ঙ্গের মত একটা চিহ্ন আছে। এরপর মাটি খুড়তেই সবাই হতবাক হয়ে দেখেন সেখানে আছে আস্ত একটা প্রাচীন সুড়ঙ্গ।

ঘটনার কথা জানা জানি হতেই স্থানীয়রা খবর দেন স্থানীয় প্রশাসনকে। জরাজীর্ণ বাড়িটির ভেতরে সুড়ঙ্গ পথ ঘিরে কৌতুহল দেখা দিয়েছে সকলের মধ্যে। বহু মানুষ ইতিমধ্যেই ভিড় জমাচ্ছেন সুড়ঙ্গ দেখার আগ্রহ নিয়ে। তবে এই সুড়ঙ্গের সঙ্গে কাদের ইতিহাস জড়িয়ে আছে? কি কাজে ব্যবহার হত এই সুড়ঙ্গ? কত দিনের প্রাচীন এই সুড়ঙ্গটি এই সব প্রশ্নের উত্তরত এখনই দেওয়া সম্ভব নয় বলে জানিয়েছেন বিশেষজ্ঞরা। তা বিশেষ পরীক্ষা নিরীক্ষার পরেই জানা যাবে, উন্মোচন হবে এই সুড়ঙ্গের আসল রহস্য।