হাসপাতাল থেকে ছাড়া পেলেন বুদ্ধদেব ভট্টাচার্য্য, তবে এখনই যাচ্ছেন না বাড়িতে, থাকবেন সেফহোমে

টিডিএন বাংলা ডেস্ক: আপাতত হাসপাতাল থেকে ছাড়া পেলেন রাজ্যের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী বুদ্ধদেব ভট্টাচার্য। তবে এখনই বাড়ি ফিরছেন না তিনি। হাসপাতাল সূত্রে জানা গেছে তিনি এখন আগের থেকে অনেকটাই সুস্থ। রক্তচাপ ও হার্ট রেট স্বাভাবিক চলছে। সূত্রের খবর অনুযায়ী হাসপাতাল থেকে ছাড়া পাওয়ার পর তাকে সিআইডি রোডে এক পরিচিত চিকিৎসকের নার্সিংহোমে নিয়ে যাওয়া হবে সেখানেই আপাতত অক্সিজেন এবং নেবুলাইজার সাপোর্টে রাখা হবে তাঁকে।

হাসপাতাল সূত্রে জানা গিয়েছে অন্যান্যবারের মতো এবার খানিকটা সুস্থ বোধ করতেই বাড়ি ফিরতে চাননি বুদ্ধবাবু। মরণোত্তর দেহদানের যে সংকল্প তিনি করেছেন তা বজায় রাখতে সম্পূর্ণ করোনামুক্ত হয়েই হাসপাতাল থেকে বাড়ি ফিরতে চেয়েছিলেন তিনি। তার এই ইচ্ছের সম্মান রাখতে ডাক্তারদের পক্ষ থেকেও যথাসাধ্য প্রচেষ্টা করা হয়।

গত মাসের ১৮ তারিখ বুদ্ধদেব ভট্টাচার্য করোনায় আক্রান্ত হন। সে সময় বাড়িতেই চিকিৎসা চলছিল তাঁর। এরপর আচমকাই ২৪ তারিখ তার শারীরিক অবস্থার অবনতি ঘটলে দক্ষিণ কলকাতার একটি বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি করা হয় তাঁকে। ওই একই হাসপাতালে করোনায় আক্রান্ত হওয়ার কারণে ভর্তি হন স্ত্রী মীরা ভট্টাচার্য ও বুদ্ধবাবুর সর্বসময়ের সঙ্গী তপনবাবুও। পরে মীরা ভট্টাচার্যও তপনবাবু হাসপাতাল থেকে ছাড়া পেয়ে গেলেও সাড়া পাননি বুদ্ধবাবু। আজ দুপুরে ওই বেসরকারি হাসপাতাল থেকে শেষ পর্যন্ত তাঁকে মুক্ত করা হলেও সূত্রের খবর অনুযায়ী, আপাতত সিআইটি রোডের ধারে বুদ্ধবাবুর এক পরিচিত চিকিৎসকের নার্সিংহোমে। সেখানেই অক্সিজেন ও নেবুলাইজার সাপোর্টে রাখা হবে তাঁকে। ওই নার্সিংহোমেই থাকবেন তাঁর স্ত্রী মীরা ভট্টাচার্য ও কন্যা।