ডিটেনশন ক্যাম্প নির্মাণ শুরু সিপিএম শাসিত কেরলে

টিডিএন বাংলা ডেস্ক: সিপিএম শাসিত কেরলের মুখ্যমন্ত্রী পিনারাই বিজয়ন প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন, তাঁর রাজ্যে কোনো ডিটেনশন সেন্টার নির্মাণ হবে না। নাগরিকত্ব সংশোধনী আইনের বিরুদ্ধে কেরল বিধানসভায় প্রস্তাবও পাস করে তাঁর সরকার। তবে শেষ পর্যন্ত, কেন্দ্রের নির্দেশ অনুযায়ী রাজ্যে ডিটেনশন ক্যাম্প তৈরির কাজ পুনরায় চালু হয়েছে। কেরলের প্রথম শ্রেণীর দৈনিক মধ্যমম ও জাতীয় পত্রিকা ন্যাশনাল হেরাল্ডে প্রকাশিত একটি প্রতিবেদন অনুযায়ী, একদিকে যখন গোটা দেশে সিএএ নিয়ে ফের আলোচনা শুরু হয়েছে ঠিক সেইসময় সামাজিক ন্যায় দফতরের ডিরেক্টর ডিটেনশন ক্যাম্প তৈরীর জন্য পুনরায় নোটিশ পাঠিয়েছে রাজ্যকে। ওই নোটিশ অনুযায়ী কেরলের তিরুবনন্তপুরম এবং থ্রিসুরে এই ডিটেনশন ক্যাম্প তৈরি করা হবে বলে জানা গেছে। 

 

এর আগে ২০১৯ সালে কেন্দ্র রাজ্যগুলিকে ডিটেনশন ক্যাম্প তৈরি করার জন্য নির্দেশ দিয়েছিল। সে সময় প্রবল বিরোধিতার মুখে পড়ে ডিটেনশন ক্যাম্প তৈরীর কাজ থেমে যায়। এরপর কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ ও বিজেপি নেতৃত্বরা জানিয়েছিলেন দেশে কোন ডিটেনশন ক্যাম্প নেই। উল্লেখ্য, দেড় বছর আগে যখন কেন্দ্রের তরফ থেকে রাজ্যগুলিকে ডিটেনশন ক্যাম্প তৈরীর জন্য নির্দেশ দেয়া হয় সে সময় ওই ক্যাম্পগুলি স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের সহযোগিতায় তৈরি করা হবে বলে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। মূলতঃ যাদের ভিসার মেয়াদ শেষ হয়ে গেছে এবং যারা অবৈধভাবে দেশে প্রবেশ করেছেন তাদের এইসমস্ত ডিটেনশন সেন্টারে রাখা হবে বলে কেন্দ্রের তরফ থেকে জানানো হয়েছিল।