দেশজুড়ে আজ চিকিৎসকদের ১২ ঘণ্টার হরতাল, এমার্জেন্সী এবং কোভিড বাদে বন্ধ থাকবে অন্যান্য পরিষেবা

প্রতীকী ছবি

টিডিএন বাংলা ডেস্ক: সম্প্রতি কেন্দ্র সরকার একটি নির্দেশিকা জারি করে আয়ুর্বেদিক এবং ইউনানী পদ্ধতির ডাক্তারদেরও শল্য চিকিৎসা করার অনুমতি দিয়েছে। সরকারের এই সিদ্ধান্তকে কেন্দ্র করে সারা দেশজুড়ে দুটি ভাগে বিভক্ত হয়ে গিয়েছেন চিকিৎসকেরা। সরকারের এই সিদ্ধান্তের বিরোধীতা করে ইন্ডিয়ান মেডিকেল অ্যাসোসিয়েশনের পক্ষ থেকে আজ সারা দেশজুড়ে হরতালের আহ্বান জানানো হয়েছে। দেশের বিভিন্ন হাসপাতালে ইন্ডিয়ান মেডিকেল অ্যাসোসিয়েশনের পক্ষ থেকে ডাকা এই হরতালের সাড়া দিচ্ছেন চিকিৎসকরা।

আজ সারাদিন ধরে চলা এই হরতালের কারণে বেসরকারি হাসপাতাল, ডায়াগনোস্টিক সেন্টার, প্যাথলজি বন্ধ থাকবে। এছাড়া রাজ্য সরকারের অধীনস্থ হাসপাতালগুলিতে আজ সারা দিন ওপিডি বন্ধ থাকবে বলে জানা গেছে। শুধুমাত্র এমার্জেন্সি এবং কোভিড পরিষেবা ছাড়া অন্য সমস্ত পরিষেবা বন্ধ রাখা হবে। সরকারি হাসপাতালে এই হরতালের প্রভাব দেখতে পাওয়া যাবে।

প্রসঙ্গত, আয়ুষ মন্ত্রকের অধীনে ভারতীয় চিকিত্সা সিস্টেমের নিয়ন্ত্রণের সাথে সংযুক্ত একটি বিধিবদ্ধ ইউনিট সিসিআইএম ২০ শে নভেম্বর প্রকাশিত এক প্রজ্ঞাপনে ৩৯ টি সাধারণ শল্যচিকিত্সা তালিকাভুক্ত করেছে, যার মধ্যে ১৯ টি পদ্ধতি চোখ, নাক, কান এবং গলার সাথে সম্পর্কিত। এ জন্য, সেন্ট্রাল কাউন্সিল অফ ইন্ডিয়ান মেডিসিন (স্নাতকোত্তর আয়ুর্বেদ শিক্ষা) আইন, ২০১৬-তে সংশোধন করা হয়েছিল। আইএমএ কর্মকর্তারা একটি সংবাদ সম্মেলনে সরকারের এই সিদ্ধান্তের তীব্র আপত্তি জানিয়ে এটিকে মিক্সোপ্যাথি বলে অভিহিত করেছেন।