রকেট হামলা চালিয়ে ইসরায়েলের বিমান হামলার জবাব দিলো হিজবুল্লাহ

ট‍্যুইটার থেকে প্রতিকী ছবি

টিডিএন বাংলা ডেস্কঃ লেবানন থেকে তিনটি রকেট ছোঁড়ার অভিযোগে ইসরাইল লেবাননে গোলাবর্ষণ করে। এরপর লেবাননের বেশ কিছু স্থানে বিমান হামলা চালায়। অবশ্য ইসরাইলের দাবি, যে সমস্ত স্থান থেকে রকেট হামলা চালানো হয়েছিল সে সমস্ত স্থানেই বিমান হামলা চালিয়েছে তারা। কিন্তু ইজরাইলের এই সিদ্ধান্তকে ‘লেবাননের সার্বভৌমত্বের হস্তক্ষেপ’ বলে ঘোষণা করেছে লেবানন ও লেবাননের জনপ্রিয় প্রতিরোধ সংগঠন হিজবুল্লাহ। এর প্রতি উত্তরে আজ শুক্রবার হিজবুল্লাহ ইসরাইলের দাউদ সামরিক ঘাঁটিতে হামলা চালালো। হিজবুল্লাহ এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, “অধিকৃত শেবা ফার্ম এলাকায় ইহুদিবাদী ইসরাইলের সেনা অবস্থান লক্ষ্য করে এসব রকেট হামলা চালানো হয়।” বিবৃতিতে আরও বলা হয়েছে, স্থানীয় সময় আজ সকাল সোয়া এগারোটার দিকে হিজবুল্লাহ যোদ্ধারা ১২২ ক্যালিবারের অন্তত ২০টি রকেট ছোঁড়ে। লেবাননের নিরাপত্তা সূত্র জানিয়েছে, ‘লেবাননের শিবা শহরের আল-আরকুব এলাকা থেকে রকেট ছোঁড়া হয়েছে। ইসরাইলি সংবাদ মাধ্যমের খবর, ইসরাইলের উত্তরাঞ্চলের লোকজনকে ঘরের মধ্যে থাকতে বলা হয়েছে। রকেট হামলার পর ইহুদিবাদী ইসরাইলের প্রধানমন্ত্রী নাফতালি বেনেট ও যুদ্ধমন্ত্রী বেনি গান্তজ জরুরি বৈঠকে বসেন। উল্লেখ্য যে, ইসরায়েলের বিমান বাহিনী লেবাননের বেশ কিছু স্থানে বিমান হামলার পাশাপাশি ফসফরাস বোমা নিক্ষেপ করেছে বলে অভিযোগ করেছে লেবানন। আল জাজিরার খবর অনুজায়ী, এর ফলে লেবানন সীমান্তের বিস্তীর্ণ এলাকার ফসলের ক্ষেতে আগুন ধরে যায়। এরপর আজ হিজবুল্লাহর প্রতিআক্রমণ হিসেবে রকেট হামলা, ইসরাইল ও লেবাননের রাজনৈতিক পরিস্থিতিকে উত্তপ্ত করে তুলেছে। এদিকে আজ ইসরাইলের বিমান হামলার নিন্দা করেছে আরব লীগ। একই সঙ্গে তারা ইসরাইলের প্রতি হুঁশিয়ারি জানিয়েছে। আন্তর্জাতিক রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞরা মধ‍্যপ্রাচ‍্যে ঘটমান সংঘর্ষ গুলির প্রেক্ষাপটে একটি ভয়ঙ্কর যুদ্ধের আশঙ্কা করছেন।