তামিলনাড়ু তে স্ট্যলিন সরকারের তিন মুসলিম বিধায়কের মধ্যে দুজন মন্ত্রী

টিডিএন বাংলা ডেস্ক : তামিলনাড়ুতে এবার ডিএমকে দল বিজেপির শরিক এআইএডিএমকে – কে পরাজিত করে ক্ষমতায় এসেছে। ইতিমধ্যে ডিএমকে প্রধান এম কে স্ট্যালিন মুখ্যমন্ত্রী হিসাবে শপথ নিয়েছেন। তাঁর মন্ত্রিসভায় রয়েছেন ৩৪ জন সদস্য। ‎স্ট্যালিন ২ জন সংখ্যালঘু মুসলমানকে তার মন্ত্রিসভায় নিয়েছেন । ২০১১ এর আদমশুমারি অনুযায়ী, তামিলনাড়ুতে মুসলিমদের জনসংখ্যা মাত্র ৫.৮৬ শতাংশ। তা সত্ত্বেও ২ জন মুসলিমকে ক্যাবিনেটে নেওয়ায় এম কে স্ট্যালিনকে অনেকেই অভ্যর্থনা জানিয়েছেন।

উল্লেখ্য এবার ৭ জন মুসলিম তামিলনাড়ু বিধানসভায় নির্বাচিত হয়েছেন। এদের মধ্যে ডিএমকে – এর রয়েছেন ৩ জন বিধায়ক, ২ জন হচ্ছেন মানেথা নিয়া মাক্কাল কাচি দিল থেকে, ১ জন কংগ্রেস এবং আর একজন ভিদু থালাই চিরউততাইকাল কাচি থেকে। এঁদের মধ্যে যে ২ জন মুসলিমকে এম কে স্ট্যালিন মন্ত্রী করেছেন।

‎আভাদি নির্বাচনী এলাকার প্রতিনিধি এসএম নাসারকে দুধ ও দুগ্ধ উন্নয়ন মন্ত্রী এবং গিঙ্গি কেন্দ্রের বিধায়ক গিঙ্গি কেএস মাস্থানকে সংখ্যালঘু কল্যাণ, শরণার্থী এবং উদ্বাস্তু এবং ওয়াক বোর্ড মন্ত্রী হিসাবে নিযুক্ত করা হয়েছে।‎

ইন্ডিয়ান ইউনিয়ন মুসলিম লিগের জাতীয় সভাপতি কে এম কাদের মোহিদেন স্ট্যালিনের নতুন মন্ত্রিসভায় দুই মুসলমানকে অন্তর্ভুক্ত করার জন্য প্রসংসা করেছেন।‎

‎কাদের মোহিদেন বলেছিলেন যে প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী এম করুণানিধিই তাঁর মন্ত্রিসভায় মুসলিমদের মন্ত্রিত্ব দিয়েছিলেন যা এটিকে ইতিহাস করে তুলেছে।‎

‎কাদের মোহিদেন বলেন, “তার বাবার (এম করুনানিধি) পদাঙ্ক অনুসরণ করে মুখ্যমন্ত্রী এম কে স্ট্যালিন তার মন্ত্রিসভায় দুই মুসলিমকে অন্তর্ভুক্ত করেছেন, যা সমগ্র মুসলিম জনগণের কাছ থেকে বিপুল অভ্যর্থনা জানিয়েছে।”‎

তামিলনাড়ুর একজন মুসলিম সামাজিক নেতা বলেছেন, সংখ্যায় কম হলেও কী করে সংখ্যালঘুদের প্রতিনিধিত্ব দিতে হয়, এম কে স্ট্যালিন তা হাতে কলমে দেখিয়ে দিয়েছেন। এই বিষয়টি অন্যান্য রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীদের জন্যও অনুসরণ যোগ্য।