পিছিয়ে গেল তৃণমূলের ম্যানিফেস্টো প্রকাশের দিন, আগামী ৪৮-৭২ ঘণ্টা পর্যবেক্ষণে থাকবেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়

টিডিএন বাংলা ডেস্ক: গতকাল নন্দীগ্রামের রানি চকে একটি ধর্মীয় অনুষ্ঠান থেকে ফেরার পথে জনসংযোগ করার সময় আহত হন মুখ্যমন্ত্রী। তিনি অভিযোগ করেন তাঁর বিরুদ্ধে রাজনৈতিক চক্রান্ত করা হয়েছে। চার পাঁচ জন ইচ্ছাকৃত ভাবে ধাক্কা দেয় তাঁকে। এই ঘটনার পর নন্দীগ্রাম থেকে গ্রিন করিডোর করে কলকাতায় এসএসকেএম হাসপাতালে নিয়ে আসা হয় তাঁকে।

কলকাতা এসএসকেএম হাসপাতালের ভিআইপি কেবিনে ভর্তি রয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। হাসপাতাল সূত্রে জানা গিয়েছে, তাঁর বাঁ পায়ের পাতায় এবং গোড়ালিতে চিড় ধরেছে। বাঁ পায়ের পেশিতেও চোট লেগেছে বলে জানা গেছে। গতকাল রাতেই এমআরআই এরপর টেম্পোরারি প্লাস্টার করা হয়েছে তাঁর পায়ে। শুরু করা হয়েছে অ্যান্টিবায়োটিক। জানা গেছে পায়ের ফোলা ভাব কমলে আজ প্লাস্টার করা হতে পারে। বাপ্পা ছাড়াও তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের কনুই, ডানকাঁধ এবং ঘাড়ে চোট লেগেছে। রাতে মুখ্যমন্ত্রীকে ব্যথা নিরাময়ের জন্য ওষুধ দেওয়া হয়। তবে বুকে ব্যথা এবং শ্বাসকষ্টের কারণ অনুসন্ধান করতে আজ আবার ইসিজি এবং সিটি স্ক্যান করা হবে বলে জানা গেছে হাসপাতাল সূত্রে। করা হতে পারে ইকো। এছাড়া রক্তের একাধিক রুটিন পরীক্ষা করা হবে। আপাতত ৪৮ থেকে ৭২ ঘন্টা পর্যবেক্ষণে রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন চিকিৎসকরা।

তৃণমূল সুপ্রিমোর এহেন শারীরিক অবস্থার কারণে আজ তৃণমূলের ম্যানিফেস্টো প্রকাশের কর্মসূচি বাতিল করা হয়েছে। রদ হয়েছে মুখ্যমন্ত্রীর সাংবাদিক সম্মেলনের কর্মসূচিও। আপাতত ৪৮ থেকে ৭২ ঘন্টা এসএসকেএমের নয় সদস্যের বিশিষ্ট চিকিৎসকদের পর্যবেক্ষণে থাকবেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এর পরেই প্রকাশিত হতে পারে তৃণমূলের ম্যানিফেস্টো।