মুকুল তৃণমূলে, নারদা নিয়ে কেন্দ্রীয় সংস্থা তাঁদের অবস্থান বদলাবে? ট্যুইট অভিষেক মনু সিঙ্ঘভির

ছবি সৌজন্যে অভিষেক মনু সিঙ্ঘভির ফেসবুক পেজ।

টিডিএন বাংলা ডেস্ক: সব জল্পনার অবসান করে শেষ পর্যন্ত গেরুয়া শিবির ছেড়ে ঘাসফুল শিবিরে প্রত্যাবর্তন করলেন মুকুল রায়।দলের একসময়ের সেকেন্ড-ইন-কমান্ডকে নিজের পাশে বসিয়ে দলে স্বাগত জানালেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সিদল তৈরীর শরীর ছিলেন মুকুল রায় এদিন সেই দলেই প্রত্যাবর্তন করলেন তিনি। মুকুল-শুভ্রাংশুকে উত্তরীয় পরিয়ে ডলি স্বাগত জানালেন তৃণমূল কংগ্রেসের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। এদিকে মুকুল রায়ের তৃণমূলে প্রত্যাবর্তনের কিছুক্ষণ আগেই নারদা নিয়ে কেন্দ্রীয় সংস্থার অবস্থান প্রসঙ্গে প্রশ্ন করলেন কংগ্রেস নেতা ও বিশিষ্ট আইনজীবী অভিষেক মনু সিঙ্ঘভি।

এদিন একটি টুইট করে অভিষেক মনু সিঙ্ঘভি লেখেন,”খবর অনুযায়ী মুকুল রায় ও তাঁর ছেলে তৃণমূলে প্রত্যাবর্তন করছেন৷ তবে কি নারদা নিয়ে কেন্দ্রীয় সংস্থা তাঁদের অবস্থান বদলাবে?”

প্রসঙ্গত,গত মাসেই নারদা মামলায় রাজ্যের চার হেভিওয়েট নেতা-মন্ত্রীকে তাদের বাড়ি থেকে গ্রেপ্তার করে নিজাম প্যালেসে নিয়ে আসে কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা। নারদ কাণ্ডে জড়িত থাকার অভিযোগে ফিরহাদ হাকিম, মদন মিত্র, সুব্রত মুখোপাধ্যায় এবং শোভন চট্টোপাধ্যায়কে গ্রেপ্তার করা হলেও ওই একই কাণ্ডে অভিযুক্ত মুকুল রায় ও শুভেন্দু অধিকারীর বিরুদ্ধে এ ধরনের কোনো পদক্ষেপ নেয়নি সিবিআই। এ নিয়ে রাজ্যের শাসক দল তৃণমূলের তরফ থেকে একাধিকবার প্রশ্ন তোলা হয়। সেই প্রশ্নের রেশ গিয়ে পৌঁছয় হাইকোর্টেও। এবার মুকুল রায় বিজেপি ছেড়ে তৃণমূলে যোগদান করার পর নারোদা কান্দে মুকুল রায় প্রসঙ্গে সিবিআইয়ের পদক্ষেপ কি হতে চলেছে তা নিয়েই প্রশ্ন করলেন বিশিষ্ট আইনজীবী অভিষেক মনু সিঙ্ঘভি।