৬ ডিসেম্বর বাবরি মসজিদ ধ্বংসের প্রতিবাদে কলকাতা জুড়ে একাধিক বিক্ষোভ মিছিল বিভিন্ন গণসংগঠনের

আব্দুস সালাম, টিডিএন বাংলা: ৬ ডিসেম্বর প্রকাশ্যে প্রশাসনের চোখের সামনে মুসলিম সম্প্রদায়ের মানুষদের কাছে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ বাবরি মসজিদ ভেঙে গুঁড়িয়ে দেয় কট্টর হিন্দুত্ববদী দলের সদস্যরা। সেই ঘটনার প্রতিবাদে প্রতি বছর এই দিনটিতে বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয় সারা দেশ জুড়ে। তারই ধারাবাহিকতায় গতকাল ৬ ডিসেম্বর কলকাতা জুড়ে একাধিক বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয় বিভিন্ন গণসংগঠনের উদ্যোগে। দুপুর ১টায় মৌলালির রামলীলা ময়দান থেকে কলকাতার নিউমার্কেট থানা পর্যন্ত একটি বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। এই বিক্ষোভে অংশ গ্ৰহণ করেন বিভিন্ন গণসংগঠনের নেতা কর্মীরা।

প্রায় একই সময়ে কলকাতার নিউমার্কেট থানায় “জনসচেতনতা যাত্রা” শিরোনামে নামে একটি সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। ফ্যাসিবাদ ও নয়া উদারবাদের বিরুদ্ধে পরিচালিত বিভিন্ন বামপন্থী সংগঠনের ওই বিক্ষোভ থেকেও বাবরি মসজিদ ধ্বংসের প্রতিবাদ জানানো হয়। বাবরি মসজিদ ভেঙে গুঁড়িয়ে দেওয়ার দিনটিকে স্মরণ করে ধর্মতলার ট্রাম ডিপোর কাছে সংহতি দিবস পালন করে শাসকদল তৃণমূল কংগ্রেস। একই দিনে বৈকাল ৪ টা থেকে শ্যামবাজারে অপর একটি বিক্ষোভ সমাবেশের আয়োজন করে অন্য কিছু গণসংগঠন। এছাড়াও রাজ্যের বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয় ও বিভিন্ন এলাকায়ও অনুষ্ঠিত হয় ছোট বড়ো বিক্ষোভ সমাবেশ।

সমস্ত বিক্ষোভ সমাবেশ থেকেই বাবরি মসজিদ ধ্বংসের বিরুদ্ধে প্রতিবাদে সোচ্চার হয় আমজনতা। গণ আন্দোলনের নেতারা দাবি করেন ওই জমিতেই আবারও বাবরি মসজিদ নির্মাণই হল ন্যায় বিচারের দাবি। বাবরি মসজিদ মামলায় আদালতের ভূমিকা ও তার নিরপেক্ষতা নিয়েও প্রশ্ন তুলেছেন তারা। তারা দাবি করেন, এর ফলে বিচারব্যবস্থার উপরে মানুষের আস্থা উঠে যাচ্ছে। এই ঘটনাকে গণতন্ত্রের জন্য লজ্জা বলে অভিহিত করেছেন অনেকেই। বর্তমান বিজেপি পরিচালিত সরকার মুসলিম সহ অন্যান্য সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের মানুষদের দ্বিতীয় শ্রেণীর নাগরিকে পরিণত করার চেষ্টা চালাচ্ছে বলেও অভিযোগ তুলেছেন সমাজকর্মীরা।