বিনা বিচারে ইসরাইলি কারাগারে বন্দি , আমরণ অনশনে ফিলিস্তিনি ফুটবলার

টিডিএন বাংলা ডেস্ক :  বিনা কারণে ও বিনা উস্কানিতে ইসরাইলি বাহিনীর হাতে আটক ফিলিস্তিনি ফুটবল খেলোয়াড় গুয়েভারা। বিনা বিচারে ইসরায়েলের কারাগারে আটক থাকার প্রতিবাদে আমরণ অনশন শুরু করেছেন এই ফিলিস্তিনি ফুটবল খেলোয়াড় গুয়েভারা আল-নামুরা। ইসরাইলের বাহিনী গত ১০ মাস আগে তাকে আটক করে এবং বিনা বিচারে জেলে বন্দি রেখেছে। এই ধরনের আটকিয়ে রাখা কে ইসরাইল অ্যাডমিনিস্ট্রেটিভ ডিটেনশন বলে থাকে যা আন্তর্জাতিক আইনের চরম লঙ্ঘন।

গুয়েভারার আটকের তিন মাস পর তার অন্তঃস্বত্ত্বা স্ত্রী একটি কন্যা সন্তান প্রসব করেন। চলতি মাসে গুয়েভারার অ্যাডমিনিস্ট্রেটিভ ডিটেনশনের মেয়াদ শেষ হওয়ার কথা ছিল কিন্তু ইসরায়েল কর্তৃপক্ষ তার অবৈধ বন্দি রাখার মেয়াদ বাড়িয়েছে। তিনি আশা করছেন এই প্রতিবাদের কারণে তাকে মুক্তি দেয়া হবে এবং তিনি তার সাত মাসের সন্তান জুলিয়াকে দেখতে পাবেন।

গুয়েভারা শুধু একা এই অনশনে যোগ দেন নি বরং তার সঙ্গে আরো অন্তত ১৪ ফিলিস্তিনি রয়েছেন। তারা সবাই বিনা বিচারে ইসরাইলের কারাগারে আটক আছেন। কোনো আনুষ্ঠানিক অভিযোগ ছাড়া ইসরায়েল অ্যাডমিনিস্ট্রেটিভ ডিটেনশনের আওতায় যেকোনো ফিলিস্তিনিকে আটক রাখতে পারে।

দখলদার ইসরাইলি সেনাদের হাতে গণহারে বন্দি ফিলিস্তিনিদের বেশিরভাগই কোনো কারণ ছাড়াই বন্দি হয়ে আছেন। সাধারণত এদের বিষয়ে কোনো সাজানো বা মিথ্যা অভিযোগও দায়ের করতে না পেরে ইসরাইল এইসব বন্দিকে প্রশাসনিক কারণে বন্দি বা প্রশাসনিক বন্দি বলে থাকে।

ইসরাইলি কারাগারগুলোতে ৪০ জন নারী ও আড়াইশ শিশুসহ প্রায় সাড়ে ৫ হাজার ফিলিস্তিনি বন্দি রয়েছেন বর্তমানে। এদের মধ্যে প্রায় ৫২০ জন কথিত অ্যাডমিনিস্ট্রেটিভ ডিটেনশনে তথা বিনা বিচারে বন্দি।